শর্ত মানা না হলে সিরিয়ায় ফের সেনা অভিযানের হুমকি এরদোগানের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: সিরিয়ার উত্তরাঞ্চল থেকে কুর্দি বাহিনী সরিয়ে ‘নিরাপদ অঞ্চল’ তৈরি করতে মঙ্গলবার সন্ধ্যা পর্যন্ত যে সময় বেঁধে দেয়া হয়েছে তা ঠিকঠাক মানা না হলে সিরিয়ায় পুনরায় হামলার হুমকি দিয়েছে আঙ্কারা। শুক্রবার ইস্তাম্বুলের সাংবাদিকদের ব্রিফিংয়ে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেফ তাইয়েপ এরদোগান যুক্তরাষ্ট্র ও কুর্দি বিদ্রোহীদের উদ্দেশ্যে এ হুঁশিয়ারি দেন। এনডিটিভি, আরব নিউজ

সিরিয়া ইস্যুতে সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও তুরস্ক সফরের সময় এরদোগানের সঙ্গে সিরিয়ায় সেনা অভিযান বিরতি বিষয়ে চুক্তি হয়। এর বিনিময়ে ওই অঞ্চল থেকে কুর্দি বিদ্রোহীদের সরিয়ে ‘নিরাপদ ভূমি’ তৈরি করতে তুরস্ককে সাহায্য করবে যুক্তরাষ্ট্র। সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে আঙ্কারা যে দুটি বিষয়ে গুরুত্ব দিচ্ছে তাতে তাদের দুটি বিষয় দৃশ্যমান যে, সিরিয়ার উত্তর পূর্বাঞ্চল থেকে কুর্দি বিদ্রোহীদের হটিয়ে দিলে তুরস্কের সীমান্ত এলাকা যেমন নিরাপদ হয় তেমনই তুরস্কের উপর সিরিয়ার যে শরণার্থীর বোঝা রয়েছে তা ওই অঞ্চলে পুনর্বাসন করতে পারবে।

সম্প্রতি সিরিয়ার উত্তরাঞ্চল থেকে কুর্দি যোদ্ধাদের হটাতে সেনা অভিযান পরিচালনা করে তুরস্ক। পরবর্তীতে যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যস্থতায় আঙ্কারা পাঁচ দিনের জন্য ওই অভিযানে বিরতি টানতে সম্মত হয়, এই শর্তে যে, এর মধ্যে কুর্দি যোদ্ধারা নিরাপদে ওই অঞ্চল থেকে সরে যাবে। অভিযানে বিরতি ঘোষণার পরও তুর্কি সেনারা সীমান্তে অবস্থান করছে, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের উত্তরে এরদোগান বলেন, সীমান্ত থেকে সেনা প্রত্যাহার করা হয়নি। তবে আগামী ১২০ ঘণ্টা পাহারা দেয়ার জন্য তাদের বহাল রাখা হয়েছে।