মেননকে পদত্যাগের আহবান আলালের

নিউজ ডেস্ক:  আমি সাক্ষ্য দিচ্ছি, গত নির্বাচনে জনগণ ভোট দিতে পারেনি’- ক্ষমতাসীন ১৪ দলের শরিক ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেননের এই বক্তব্যের জবাব দিয়েছেন বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব ও যুবদলের সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল।

তিনি বলেছেন, ‘রাশেদ খান মেনন ৫ জানুয়ারি ২০১৪ সালের নির্বাচনের পরেও বর্তমান সরকারের মন্ত্রী ছিলেন। এমনকি বর্তমান সরকারের তিনি একজন সংসদ সদস্য। তার স্ত্রীও সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য। এতকিছু সুযোগ-সুবিধা পাওয়া সত্ত্বেও তিনি এই সত্য কথাগুলো বলেছেন। অতএব আমাদের সেই প্রিয় মেনন ভাইকে যদি পেতে চাই তাহলে তাকে তার সেই পদ থেকে অবশ্যই পদত্যাগ করতে হবে। একইসঙ্গে তার স্ত্রীকেও পদত্যাগ করতে হবে। এছাড়া তিনি সরকারের কাছ থেকে যেসব সুযোগ-সুবিধা নিয়েছেন সেগুলোও ফেরত দিতে হবে।’

রবিবার (২০ অক্টোবর) সকালে বনানীর নিজ বাসভবনে সাংবাদিকদের সাথে একান্ত আলাপকালে এসব কথা বলেন তিনি।

সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেন, ‘রাশেদ খান মেনন গতকাল দীর্ণতার সাথে যে কথাগুলো বলেছেন সেই কথাগুলো শুনলে ৬৫-৬৬ সালের রাশেদ খান মেননের কথা মনে পড়ে। এমনকি স্বাধীনতার পরের সেই রাশেদ খান মেননের কথা মনে পড়ে। কিন্তু দুর্ভাগ্যের সঙ্গে বলতে হয় ক্যাসিনো-কাণ্ডে যারা গ্রেফতার হয়েছেন তারা বলেছেন রাশেদ খান মেনন প্রতিমাসে ৫ লাখ করে টাকা নিতেন এবং টাকা দেয়ায় দেরি হলে তিনি তাকে ধমক দিতেন।’

আলাল বলেন, ‘এই কথাগুলো রাশেদ খান মেননকে মিথ্যা প্রমাণিত করতে হবে এবং দেশের গণতন্ত্র ও জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠায় তার বক্তব্য ঠিক থাকতে হবে।’