কুবির ভর্তি পরীক্ষা না দিয়ে মেধাতালিকায় স্থান,ভর্তি কার্যক্রম স্থগিত

মাহফুজ কিশোর,কুবি প্রতিনিধি:

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহন না করেও মেধাতালিকায় স্থান পাওয়ার অভিযোগ উঠেছে।বি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার জন্য ফর্ম তুললেও দেননি ভর্তি পরীক্ষা। তারপরেও ওই শিক্ষার্থী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রকাশিত মেধা তালিকায় ১২ তম স্থান অধিকার করেন।

বিষয়টি প্রশাসনের নজরে আসলে বি ইউনিটের ভর্তি কার্যক্রম তিন সদস্যবিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করা হয়। কমিটি প্রতিবেদন না দেয়া পর্যন্ত ওই ইউনিটের ভর্তি কার্যক্রম স্থগিত রাখা হয়েছে।

জানা যায়, গত ৮ই নভেম্বর শুক্রবার বিকাল ৩ টা থেকে ৪ টায় কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের  ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক প্রথম বর্ষের ‘বি’ ইউনিটের (কলা ও মানবিক, সামাজিক বিজ্ঞান ও আইন অনুষদ) ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। ভর্তি পরীক্ষা না দেওয়া মেধাতালিকায় ১২ তম হওয়া ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী  পরীক্ষার কেন্দ্রের আসন হয় কোটবাড়ির টিচার্স ট্রেনিং কলেজে। কেন্দ্রের আসন বিন্যাস থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী ভর্তি পরীক্ষার্থীর নাম মো. সাজ্জাতুল ইসলাম, বাবার নাম মো. রেজাউল করিম। ‘বি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার রোল নম্বর ২০৬০৫০।

ভর্তি পরীক্ষার্থীদের জন্য পরীক্ষার হলে সরবরাহ করা উপস্থিতির তালিকায় স্বাক্ষরের স্থলে সাজ্জাতের স্বাক্ষর নেই। যেখানে তাকে অনুপস্থিত দেখানো হয়েছে।

তবে গত ১২ই নভেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার ‘বি’ ইউনিটের প্রকাশিত ফলাফল অনুযায়ী তিনি মেধাতালিকায় ১২তম স্থান অধিকার করেছেন। তবে এ বিষয়টি আগ থেকেই জানা ছিল ‘বি’ ইউনিটের সদস্যদের বলে জানান সংশ্লিষ্ট ইউনিটের দায়িত্বরতগণ ।

‘বি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা কমিটির সদস্য সচিব ড. মো. শামিমুল ইসলাম বলেন, এবিষয়টা আমাদের নজরে আসার পর ভাইবাতে ওই শিক্ষার্থীকে আটক করার সিদ্ধান্ত হয়। কিন্তু সে ভাইবা দিতেও আসেনি। এখানে ভর্তি পরীক্ষা কমিটির কোন দায় থাকতে পারে না। আমরা নিরাপত্তার স্বার্থেই বিষয়টি কমিটির সদস্যদের মধ্যে গোপন রেখেছি।

তদন্ত কমিটি গঠনের বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ড. মোঃ আবু তাহের বলেন, ঘটনাটি তদন্তে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামী তিন দিনের মধ্যে তদন্ত কমিটিকে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। প্রতিবেদনের ভিত্তিতে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।