চবিতে অনির্দিষ্টকালের অবরোধের ডাক

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি :

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) ছাত্রলীগের দুপক্ষের সংঘাতের পর অনির্দিষ্টকালের অবরোধের ডাক দিয়েছে একাংশের নেতাকর্মীরা। আর নিরাপত্তাজনিত ঝুঁকির কারনে বিশ্ববিদ্যালয় রুটের শাটল ট্রেন চলাচল বন্ধ রেখেছে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ষোলশহর রেলওয়ে স্টেশনের ভারপ্রাপ্ত মাস্টার তন্ময় চৌধুরী।

রবিবার হাটহাজারীর ২নং গেইট এলাকায় বগিভিক্তিক ভি এক্স  গ্রুপের কর্মিদের হাতে সিএফসি গ্রুপের সুমন ও রাফি আহত হওয়ার জের ধরে এই অবরোধের ডাক দিয়েছে তাপস স্মৃতি সংসদ নামের একটি সংগঠন।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের বগি ভিক্তিক দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। রোববার (১ ডিসেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই নং গেইট সংলগ্ন এগারো মাইল এলাকায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) শাখা ছাত্রলীগের সিএফসি গ্রুপের দুই নেতাকে কুপিয়ে আহত করে ভিএক্স গ্রুপের নেতা-কর্মীরা।

ঘটনার পরপর ক্যাম্পাসের জিরো পয়েন্টে বিশ্ববিদ্যালয় ও পুলিশ ছয়টি গাড়ি ভাংচুর করে ছাত্রলীগের  কর্মিরা। এসময় সরওয়ার্দী হল থেকে দুই রাউন্ড গুলির শব্দ পাওয়া গেলে পরিস্থিতি সামাল দিতে পুলিশ কাঁদানো গ্যাস ছুড়ে।

চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের (উত্তর) অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মশিউদ্দৌলা রেজা সাংবাদিকদের বলেন, শাখা ছাত্রলীগের দুই পক্ষের মধ্যে চলমান উত্তেজনার মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয় ও পুলিশের ছয়টি গাড়িও ভাঙচুর করে দুষ্কৃতকারীরা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ চার রাউন্ড টিয়ারশেল ও জলকামান ব্যবহার করে। এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতার করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

২নং গেইটে হামলার শিকার দুই নেতা হলেন সাবেক সহ-সভাপতি সুমন নাসির ও ছাত্রলীগ নেতা আব্দুল্লাহ আল নাহিয়ান রাফি।

প্রসঙ্গত, শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রেজাউল হক রুবেলের অনুসারী ‘সিএফসি’ ও চবি ছাত্রলীগের সাবেক দফতর সম্পাদক মিজানুর রহমান বিপুলের অনুসারী ‘ভিএক্স’ নামে পরিচিত।