বিকেলে ঢাকায় পৌঁছাচ্ছে ড্রিমলাইনার ‘সোনার তরী’

অচিন পাখি

জাতীয় পতাকাবাহী সংস্থা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বহরে যুক্ত হচ্ছে বিশ্বের সর্বাধুনিক প্রযুক্তিসংবলিত সম্পূর্ণ নতুন পঞ্চম ড্রিমলাইনার উড়োজাহাজ বোয়িং ৭৮৭-৯।

আজ শনিবার (২১ ডিসেম্বর) বিকেল পৌনে ৪টায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বিমানের পঞ্চম ড্রিমলাইনার অবতরণ করবে। এর মাধ্যমে বিমানবহরে উড়োজাহাজের সংখ্যা দাঁড়াবে ১৭টি। আজ আগামী মঙ্গলবার অপর ড্রিমলাইনার উড়োজাহাজ ‘অচিন পাখি’ পৌঁছানোর পর এই সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াবে ১৮-তে।

সম্প্রতি এগুলো আনার জন্য ৪৫ সদস্যের একটি দল আমেরিকার সিয়াটলে যান।

সূত্র জানায়, ১৩ জন প্রকৌশলী, আটজন পাইলট, ১২ জন কেবিন ক্রু এবং সিভিল এভিয়েশন অথরিটি অব বাংলাদেশের (সিএএবি) দুজন বিশেষজ্ঞ রয়েছেন এই দলে। অন্য যে ১০ জন উড়োাজাহাজ আনার দলে অন্তর্ভুক্ত হয়েছেন তাঁরা হলেন-অর্থ মন্ত্রণালয়ের দুজন কর্মকর্তা, আইন ও জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের দুজন কর্মকর্তা, বিমান পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান, সিএএবির চেয়ারম্যান, বেসামরিক বিমান পরিবহনমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সচিব এবং বেসামরিক বিমান পরিবহন মন্ত্রণালয় ও বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের দুজন জনসংযোগ কর্মকর্তা।

গত ১৭ নভেম্বর দুবাই উড়োজাহাজ প্রদর্শনীতে বিমান এবং বোয়িং ঘোষণা করে দুটি ৭৮৭-৯ ড্রিমলাইনার কিনেছে বিমান। প্রদর্শনীতে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি উড়োজাহাজ দুটির নাম দিয়েছেন ‘সোনার তরী’ এবং ‘অচিন পাখি’।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের জনসংযোগ বিভাগ জানায়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী ২৮ ডিসেম্বর নতুন দুই ড্রিমলাইনার এবং বিমানের মোবাইল অ্যাপস আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করার জন্য সম্মতি দিয়েছেন। বোয়িং ৭৮৭-৯ ড্রিমলাইনারে আসন সংখ্যা থাকছে মোট ২৯৮টি। এর মধ্যে বিজনেস ক্লাস ৩০টি, প্রিমিয়াম ইকোনমি ক্লাস ২১টি এবং ২৪৭টি ইকোনমি ক্লাস।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের উপমহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) তাহেরা খন্দকার জানান, বিমানের মোবাইল অ্যাপস ব্যবহার করে যাত্রীরা নিজের মোবাইল থেকেই কিনতে পারবেন বিমানের সব গন্তব্যের টিকিট। মূল্য পরিশোধ করতে পারবেন বিকাশ, রকেট কিংবা যেকোনো কার্ডের মাধ্যমে। গুগল প্লে স্টোর অথবা অ্যাপল অ্যাপস স্টোর অ্যাপটি ডাউনলোড করলে পৃথিবীর যেকোনো প্রান্ত থেকে বিমানের ফ্লাইট-সংক্রান্ত সব তথ্য পাওয়া যাবে।’