নতুন মুখ ১০-১২ জন!
আ. লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা আগামীকাল

আওয়ামী লীগের

ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা হবে আগামীকাল বৃহস্পতিবার। এ কমিটিতে উল্লেখযোগ্যসংখ্যক নারী স্থান পেতে যাচ্ছেন। তবে সম্পাদকমণ্ডলীর একাধিক পদে বিগত কমিটির নেতাদেরই রাখা হচ্ছে।

গতকাল মঙ্গলবার রাতে আওয়ামী লীগের নবনির্বাচিত সভাপতিমণ্ডলীর বৈঠকে এসব সিদ্ধান্ত হয়। প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, আগামীকাল ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে দলের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হবে। আগামী ৩ জানুয়ারি আওয়ামী লীগের নবনির্বাচিত কেন্দ্রীয় কমিটি ও উপদেষ্টা পরিষদের সদস্যরা গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করতে যাবেন। সেখানেই দলটির নতুন কমিটির প্রথম যৌথ সভা অনুষ্ঠিত হবে।

এর আগে গত ২১ ডিসেম্বর আওয়ামী লীগের ২১তম জাতীয় সম্মেলনের কাউন্সিল অধিবেশন শেষে ৮১ সদস্যের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের মধ্যে ৪২ জনের নাম ঘোষণা করা হয়। বাকি ৩৯ পদের মধ্যে তিনজন সাংগঠনিক সম্পাদক, কোষাধ্যক্ষ এবং গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি সম্পাদকের পদ রয়েছে।

বৈঠকে উপস্থিত একাধিক নেতা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বাংলাদেশমেইল নিউজকে জানান, বিগত কমিটির তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আফজাল হোসেন, উপপ্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিনকে আবারও একই পদে রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে। কার্যনির্বাহী সদস্য পদে ১০-১২ জন নতুন মুখ আসবে। ফলে বিগত কমিটির সদস্যদের অনেকে বাদ পড়বেন। গতবারের চেয়ে বেশিসংখ্যক নারীকে কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সদস্য করা হচ্ছে। রংপুর বিভাগ থেকে ছাত্রলীগের এক সাবেক নেতা ও সংসদ সদস্যকে সাংগঠনিক সম্পাদক করার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে।

দলীয় সূত্রগুলো জানায়, বৈঠকে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীতে প্রথমবারের মতো স্থান পাওয়া দুই সদস্যের মধ্যে বাগিবতণ্ডা হয়। একজন বিগত কমিটির শ্রম ও জনশক্তিবিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজকে কমিটিতে রাখার পক্ষে মত দেন। আরেকজন তাঁর বিরোধিতা করেন।

সূত্রগুলো জানায়, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্যরা বিভিন্ন পদে নেতাদের নাম প্রস্তাব করেছেন। কেউ কেউ আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার কাছে লিখিত প্রস্তাবও দিয়েছেন।

জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মুহম্মদ ফারুক খান বলেন, ‘সভাপতিমণ্ডলীর সভায় আমরা প্রায় তিন ঘণ্টা ধরে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব নির্বাচনের নানা দিক নিয়ে আলাপ-আলোচনা করেছি। অনেক নাম এসেছে। কয়েকটি পদে আমরা সিদ্ধান্ত নিতে পারিনি। সেগুলোর ভার আমরা আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ওপর ছেড়ে দিয়েছি। এবারের কমিটিতে উল্লেখযোগ্যসংখ্যক নারীকে যুক্ত করা হচ্ছে।’

সভাপতিমণ্ডলীর বৈঠক শেষে গণভবনের ফটকে সাংবাদিকদের আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘২৬ তারিখ আওয়ামী লীগের ৮১ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা হবে।’

কমিটিতে কারা স্থান পাচ্ছেন জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘নতুন ও পুরাতনদের সমন্বয়ে কমিটি হবে।’

শূন্য পদগুলো পূরণের জন্য সাবেক ছাত্রনেতাদের বিবেচনা করা হবে কি না জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘সম্মেলনের আগেও আপনারা অনেকের নাম দিয়েছেন। আসলে এক ধরনের অনুমান থাকেই, অনুমাননির্ভর রিপোর্টও হতে পারে। আপাতত বিষয়টি অনুমানের মধ্যেই থাকুক। একটু সারপ্রাইজ থাকুক।’ মন্ত্রিসভায় যাঁরা স্থান পাননি, তাঁদের কাউকে কমিটিতে রাখার প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘এটা নিয়েও সভায় আলোচনা হয়েছে। আমাদের লিডার, প্রেসিডিয়াম ও দলের সভাপতি শেখ হাসিনা দায়িত্ব নিয়েছেন। আশা করছি তিনি আগামীকালের মধ্যে বিষয়টি ফাইনালাইজ করবেন।’