করোনা উপসর্গ নিয়ে যুবকের মৃত্যু, আনোয়ারার ১৩ টি বাড়ি লকডাউন

বাংলাদেশ মেইল ::

করোনা উপসর্গ নিয়ে এক যুবকের মৃত্যুর পর আনোয়ার উপজেলার ১৩ টি বাড়ি লকডাউন করেছে উপজেলা প্রশাসন। শ্বাস কষ্ট ও গলাব্যথা নিয়ে রবিবার এ যুবকের (২৩) মৃত্যু হয় চমেক হাসপাতালে।

উপজেলার বারখাইন ইউনিয়নের শিলাইগড় এলাকায় শ্বাস কস্ট, গলাব্যথার মতো করোনা উপসর্গ নিয়ে ২৩ বছর বয়সী ওই যুবক হাসপাতালে মারা যাবার পর প্রশাসন এই ব্যবস্থা নিয়েছে।

নিহত যুবকের বাড়িসহ আরো ১২ টি বাড়ি আপাতত লকডাউন করা হয়েছে৷ আনোয়ারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শেখ জোবায়ের আহমেদ জানান, রবিবার রাতে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শিলাইগড় পাড়ার যুবক শরিফ উদ্দিন (২৩) করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণ করেন। তার মধ্যে শ্বাস কস্ট, গলাব্যথাসহ করোনা উপসর্গ রয়েছে এমন তথ্যের পর সতর্কতার অংশ হিসেবে শিলাইগড় পাড়া লকডাউন করে দেয়া হয়েছে। প্রায় শতাধিক পরিবারের বসবাস করা ওই পাড়ায় সবার নিরাপত্তার বিষয়টি বিবেচনা করে সোমবার (৬ এপ্রিল) ভোর থেকে পাড়ায় প্রবেশ কিংবা ত্যাগে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

মৃত যুবকের নমুনা পরীক্ষার জন্য ফৌজদারহাটের বিআইটিআইডিতে পাঠানো হয়েছে।
নমুনা পরীক্ষায় করোনাভাইরাস শনাক্ত হলে ওই এলাকা লকডাউন পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন ইউএনও।