চট্টগ্রামে তিন ল্যাবে ১৬১ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত

বাংলাদেশ মেইল ::

শুক্রবার (২২ মে)   চট্টগ্রামের ফৌজদারহাটের বিআইটিআইডি, সিভাসু ল্যাবে,  চমেক হাসপাতালের পিসিআর ল্যাবে ৫৪৫ টি নমুনা পরীক্ষা করে ১৬২ টির রিপোর্ট করেনা পজিটিভ এসেছে। এর মধ্যে  ১৬১ জনই চট্টগ্রাম জেলার নতুন আক্রান্ত রোগী ।

চট্টগ্রামের ১৬১ জন করোনা আক্রান্ত রোগীর ১২৯ জনই চট্টগ্রাম মহানগরের বাসিন্দা। বাকি ৩২ জন বিভিন্ন উপজেলার রোগী।

এদের মধ্যে  পটিয়ার ৬ জন,  বোয়ালখালীর ২জন,  হাটহাজারীর ২জন,  সীতাকুন্ডর ১ জন,  রাউজানের ৬ জন , সীতাকুণ্ডের ৮জন , রাংগুনিয়ার ২ জন, হাটহাজারীর ৩জন , আনোয়ারার ১ জন  ও মীরসরাই উপজেলার ১জন রোগী রয়েছে।

শুক্রবার  (২২ মে) রাতে   চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি এসব তথ্য জানান। তিনি জানান,  গত ২৪ ঘন্টায়  বিআইটিআইডি’তে  ২৪৭  জনের নমুনা পরীক্ষায় ৩৭ জনের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট  পাওয়া গেছে। নতুন শনাক্ত হওয়া রোগীর  ৩৭ জনই চট্টগ্রামের। এদের ২৭ জন মহানগরের,  ১০ জন উপজেলার বাসিন্দা।

চমেক হাসপাতালের পিসিআর ল্যাবে ২০৯ টি  নমুনা পরীক্ষা করে ১০০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। চমেক হাসপাতালে করোনা পরীক্ষা চালুর পর থেকে একদিনেই ১০০ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে শুক্রবার। এর মধ্যে ৯২ জনই চট্টগ্রাম মহানগরের রোগী। বাকি আটজন উপজেলার বাসিন্দা।

এছাড়া ভেটেইনারি বিশ্ববিদ্যালয়ের (সিভাসু) ল্যাবে গত ২৪ ঘন্টায় ৮৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে ২৫ টি নমুনা পজিটিভ। নতুন শনাক্ত হওয়া রোগীদের ২৪ জন চট্টগ্রামের। একটি নমুনা ফলোআপ রোগী। নতুন শনাক্ত হওয়া ২৪ জনের ১৪ জন উপজেলার রোগী৷ বাকি দশজন বসবাস করেন চট্টগ্রাম মহানগরে।

নতুন আক্রান্ত হওয়া ১৬১ জন নিয়ে চট্টগ্রামে  মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১৪৮৬ জনে। গত বুধবার সর্বোচ্চ সংখ্যক ২৫৬ জন রোগী শনাক্ত হয় চট্টগ্রামে।

এখন পর্যন্ত চট্টগ্রাম জেলায় সর্বমোট করেনা আক্রান্তের ৭৫ শতাংশই মহানগরের বাসিন্দা। ২৫ শতাংশ রোগী উপজেলার বাসিন্দা।

চট্টগ্রামে বর্তমানে ফৌজদারহাটস্থ  বিআইটিআইডি, ভেটেইনারী বিশ্ববিদ্যালয়              ( সিভাসু), চমেক ল্যাব, কক্সবাজার মেডিকেল  কলেজসহ চারটি ল্যাবে করোনা পরীক্ষা করা হচ্ছে।

সিভিল সার্জন কার্যালয়ের গতকালের তথ্য অনুযায়ী  ,  চট্টগ্রামে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে সর্বমোট সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১৪৭ জন। গেল ২৪ ঘন্টায় ৭ জন করোনা আক্রান্ত রোগীর সুস্থ  হয়েছে। গেল ২৪ ঘন্টায় ৫ জন করোনা আক্রান্ত রোগী মৃত্যুবরন করেছে চট্টগ্রামে।  এখন পর্যন্ত চট্টগ্রামে  করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরন করেছে চট্টগ্রামের ৫০ জন। করোনা আক্রান্তদের মধ্যে ৯৩৯ জন পুরুষ এবং  ২৮৯ জন মহিলা।

আক্রান্তের উপাত্ত বিশ্লেষণের পর দেখা যায় চট্টগ্রামের আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে ৫২ শতাংশই   ২১ থেকে ৪০ বছর বয়সী। বুধবার পর্যন্ত ২১-৩০ বয়সী আক্রান্ত রোগী মোট আক্রান্তের  ২৪ %  ।

বর্তমানে আইসোলেশনে রয়েছেন ১৫৯ জন। এছাড়া হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছে ৩৭৭ জন  ।

প্রসঙ্গত, এপ্রিলের   ৩ তারিখে মাত্র একজন রোগী শনাক্ত হওয়ার পর ৪৯ দিনের মাথায় শুক্রবার     চট্টগ্রামের তিনটি ল্যাবে একদিনে শনাক্ত হয় ১৬১ জন করোনা আক্রান্ত রোগী । এ নিয়ে এখন মোট আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা  ১৪৮৬ জন।

এখন পর্যন্ত  আক্রান্তের জন  ১০৪৯ চট্টগ্রাম নগরীর বাসিন্দা। এছাড়া ৩৩৭  জন চট্টগ্রামের বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা। এর মধ্যে সাতকানিয়া উপজেলায় ৩৫ জন করোনা আক্রান্ত  রোগী   রয়েছে। পাশ্ববর্তী উপজেলা লোহাগাড়ায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৪৩ জন। সীতাকুণ্ড উপজেলায় ৫৬ জন,  বোয়ালখালীতে ১৬ জন, পটিয়ায় ৫৮ জন, আনোয়ারায় ৬ জন,  চন্দনাইশে ১২ জন, রাঙ্গুনিয়ায় ২৭ জন, বাঁশখালীতে ২১ জন,  রাউজানে ১১ জন,  ফটিকছড়িতে ৩ জন, মিরসরাই এ ৭ জন, হাটহাজারীতে ৪০ ,  স্বন্দ্বীপে ১১ জন করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন।