প্রত্যাহার চুক্তির পরও লাদাখে সামরিক শক্তি বাড়াচ্ছে ভারত ও চীন

বাংলাদেশ মেইল :: 

চীন-ভারত সীমান্তে উত্তেজনা প্রশমনে ‌‘পারস্পরিক সমঝোতায়’ পৌঁছানো সত্ত্বেও চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মি লাদাখ অঞ্চলে সামরিক শক্তি বৃদ্ধি অব্যাহত রেখেছে বলে অভিযোগ ওঠেছে।

বুধবার উপগ্রহ থেকে তোলা ছবিতে প্যাংগং সো লেক এলাকাজুড়ে পিএলএ সৈন্যদের অবস্থান দেখা যায়। প্যাংগং সোতে ভারত-চীন সীমান্তে পিএলএর আরো সৈন্য দেখা গেছে।

গত ২২ জুনের উপগ্রহ থেকে তোলা ছবিতেও চীনের সম্ভাব্য প্রতিরক্ষা অবস্থান (ছোট ছোট প্রাচীর ও পরিখাসহ) দেখা যায়।

এর আগে ভারতীয় সেনাবাহিনী দাবি করে, দুই পক্ষ মঙ্গলবার দুই দেশের কোর কমান্ডাদের বৈঠকে পূর্ব লাদাখ সীমান্ত থেকে সৈন্য প্রত্যাহার করে নিতে রাজি হয়েছে। ভারতীয় সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে বলা হয়, দুই দেশ সংলাপ এবং শান্তি ও স্থিতিবস্থা বজায় রাখতে একমত হয়েছে।

এই সভার এক দিন পর ভারতের সেনাপ্রধান এম এম নারাভানে লাদাখ সফর করেন।

ভারত ও চীন এপ্রিল থেকে সীমান্ত উত্তেজনায় রয়েছে। তবে ১৫ জুন গালওয়ান ভ্যালিতে সংঘর্ষের পর উত্তেজনা আরো বেড়ে যায। গালওয়ান ভ্যালির তিনটি স্থানে হওয়া সংঘর্ষে ২০ ভারতীয় সৈন্য নিহত হয়।

ভারতীয় মিডিয়া দাবি করেছে যে চীনের অন্তত ৪০ সৈন্য নিহত হয়েছে। তবে চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় মঙ্গলবার এই দাবিকে ভুয়া খবর হিসেবে অভিহিত করে।