করোনা আপডেট
করোনায় ২৪ ঘন্টায় রেকর্ড ৬৪ জনের মৃত্যু, শনাক্ত আরও ৩৬৮২

বাংলাদেশ মেইল::  করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) একদিনে ই আক্রান্ত ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড ৬৪ জনের মৃত্যু, শনাক্ত আরও ৩৬৮২
সর্বোচ্চ মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৬৪ জন। এ নিয়ে দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মোট ১ হাজার ৮৪৭ জন মারা লেন। এর আগে একদিনে সর্বোচ্চ ৫৩ জন মারা গিয়েছিলেন গত ১৬ জুন।

এদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত ৩ হাজার ৬৮৩ জন শনাক্ত হয়েছে। একই সময়ে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১ হাজার ৮৪৪ জন। এ নিয়ে দেশে করোনাভাইসে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ লাখ ৪৫ হাজার ৪৮৩ জনে। এর মধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৫৯ হাজার ৬৪০ জন।

মঙ্গলবার (৩০ জুন) দুপুরে কোভিড-১৯ সংক্রান্ত স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিয়মিত অনলাইন বুলেটিনে এসব তথ্য তুলে ধরেন অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে ৬৮টি ল্যাবে নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। তবে এর মধ্যে দুইটি বেসরকারি ল্যাবের ফল পাওয়া যায়নি। বাকি ৬৬টি ল্যাবের নমুনা পরীক্ষার ফল মিলেছে। সব ল্যাব মিলিয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় ৬৮টি ল্যাবে নমুনা সংগ্রহ হয়েছে ১৮ হাজার ৮৬৩টি। আগের দিনের নমুনাসহ মোট নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১৮ হাজার ৪২৬টি। এ নিয়ে দেশে মোট ৭ লাখ ৬৬ হাজার ৪৬০টি নমুনা পরীক্ষা করা হলো।

বুলেটিনে আরো জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় যেসব নমুনা পরীক্ষা হয়েছে, এর মধ্যে ৩ হাজার ৬৮২ জনের শরীরে কোভিড-১৯-এর উপস্থিতি পাওয়া গেছে। এ নিয়ে দেশে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১ লাখ ৪৫ হাজার ৮৮৩ জনে। গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৯ দশমিক ৯৮ শতাংশ। আর এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ১৮ দশমিক ৯৮ শতাংশ।

এদিকে, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ৬৪ জন গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন। এ নিয়ে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৮৪৭ জনে। আক্রান্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার ১ দশমিক ২৭ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুবরণকারীদের মধ্যে পুরুষ ৫২ জন, নারী ১২ জন। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন ৫৩ জন, বাসায় মারা গেছেন ১১ জন।

অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১ হাজার ৮৪৪ জন করোনায় আক্রান্ত রোগী সুস্থ হয়েছেন। এ নিয়ে মোট সুস্থ হলেন ৫৯ হাজার ৬৪০ জন। আক্রান্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৪০ দশমিক ৯৮ শতাংশ।