সরকারি ব্যবস্থাপনায় করোনা টেষ্টে ফি নির্ধারণ পুনর্বিবেচনার অনুরোধ সুজনের

চট্টগ্রাম মেইলঃ করোনা নমুনা পরীক্ষা রাষ্ট্রের ব্যয় নয়, বিনিয়োগ বলে অভিমত ব্যক্ত করেছেন জনদুর্ভোগ লাঘবে জনতার ঐক্য চাই শীর্ষক নাগরিক উদ্যোগের প্রধান উপদেষ্টা ও চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি খোরশেদ আলম সুজন। তিনি আজ মঙ্গলবার (৩০শে জুন ২০২০ইং) এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ মত প্রকাশ করেন।

এ সময় জনাব সুজন বলেন করোনাভাইরাস বিশ্বজুড়ে মহামারী রূপে ধারণ করলেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দক্ষ নেতৃত্বে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অবস্থা এখনও সুদৃঢ় অবস্থায় রয়েছে। শত সীমাবদ্ধতার মাঝেও জনগনের স্বাস্থ্য সেবায় প্রয়োজনীয় ত্বরিত উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন তিনি। যুক্তরাষ্ট্রের জনপ্রিয় ফোর্বস ম্যাগাজিন দাবি করছে, শঙ্কা থাকা সত্ত্বেও বিশ্বের যে কয়েকটি দেশে করোনার লাগাম টেনে ধরতে পেরেছে সেগুলোর নেতৃত্বে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অন্যতম। এদিকে গতকাল সরকারি ব্যবস্থাপনায় করোনাভাইরাস নমুনা পরীক্ষার জন্য ফি’র হার নির্ধারণ করে পরিপত্র জারি করেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। বলা হচ্ছে যে অপ্রয়োজনীয় কোভিড-১৯ নমুনা পরীক্ষা পরিহার করার লক্ষ্যে পরীক্ষার জন্য এ ফি নির্ধারণ করা হয়েছে। এর ফলে জনগন নমুনা পরীক্ষার আগ্রহ হারিয়ে ফেলবে। এতে করে সংক্রমণের সংখ্যাও বাড়বে বলে মত প্রকাশ করে সরকারের নিকট ফি নির্ধারণের বিষয় পুনর্বিবেচনার অনুরোধ জানিয়েছেন নাগরিক উদ্যোগের প্রধান উপদেষ্টা খোরশেদ আলম সুজন। তিনি বলেন সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণের জন্য যখনই পরীক্ষার হার বাড়ানো দরকার তখনই কিছু কুচক্রী মহল তাদের নোংরা খেলায় মেতে উঠেছে। তারা সরকারের বন্ধু সেজে জনগন এবং সরকারের মাঝে দূরত্ব সৃষ্টি করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। মাস্ক কেলেংকারি, নিম্নমানের পিপিই ক্রয়সহ স্বাস্থ্য সরঞ্জাম ক্রয় দূর্নীতির সাথে জড়িত এ চক্রটি। বিভিন্ন চিকিৎসা সামগ্রীর অভাবকে কাজে লাগিয়ে তারা দুই টাকার জিনিসকে ২ হাজার টাকা পর্যন্ত ক্রয় দেখাচ্ছে। ইতিপূর্বে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের একটি পর্দা কিনতেই দাম দেখানো হয়েছিল ৩৭ লাখ টাকা। সম্প্রতি ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীদের সেবাদানকারী চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীদের এক মাসের খাবারের বিল দেখানো হয়েছে ২০ কোটি টাকা। এ খরচকে অস্বাভাবিক বলে উল্লেখ করেছেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। জনাব সুজন আরো বলেন সরকারের নীতি নির্ধারককে অনুধাবন করতে হবে করোনা নমুনা পরীক্ষা রাষ্ট্রের ব্যয় নয়, এটি বিনিয়োগ। জনগন যত দ্রুত সম্ভব সুস্থ হয়ে উঠবে দেশের অর্থনীতি এবং জীবনযাত্রা তত দ্রুতই স্বাভাবিক হয়ে উঠবে। এতে করে বড় ধরণের আর্থিক ক্ষতির কবল থেকে বাঁচবে দেশ। তিনি মনে করেন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়সহ বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের আর্থিক অনিয়ম এবং দূর্র্নীতি রুখে দাড়ানোর এখনই সময়। মানুষের জীবন-মরণ সন্ধিক্ষণে চিকিৎসা সেবার মতো গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে থেকে যারা এসব দূর্নীতি ও অনিয়মের সাথে যুক্ত তাদেরকে বিশেষ ট্রাইব্যুনালের মাধ্যমে প্রকাশ্যে ফাঁসি দেওয়ার দাবী জানান তিনি।

তিনি আরো বলেন প্রধানমন্ত্রী আপনাকে দেশের মানুষ বিশ্বাস করে। আপনার প্রতি দেশের মানুষ আস্থাশীল। দেশের জনগনের জন্য আপনার রাত দিন পরিশ্রম দূর্নীতির ইঁদুররা গ্রাস করে ফেলছে। তাদেরকে কোনভাবেই সফল হতে দেয়া যাবে না। এখনই সময় এইসব দূর্নীতিবাজদের রুখে দাড়ানোর। তিনি করোনাকান্ডের ব্যয় নির্বাহের জন্য সমাজের সক্ষম ব্যাক্তিবর্গের নিকট থেকে করোনা ট্যাক্স আদায় করার বিশেষ পরিকল্পনা গ্রহণ করা যায় কিনা তা ভেবে দেখারও আহবান জানান। করোনাকান্ড মোকাবেলার জন্য দেশের সাধারন জনগন প্রয়োজনে মুষ্টি চাল নিয়ে সরকারের পাশে এসে দাড়াবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি। মানুষের উপর নমুনা পরীক্ষার ফিস নির্ধারণ নয়, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়সহ অন্যান্য আর্থিক খাতের দূর্নীতি কমিয়ে ব্যয় সাশ্রয় করার জন্যও সরকারের নিকট অনুরোধ জানান জনাব সুজন।

এছাড়া সরকারি, আধা সরকারি, বে সরকারি, স্বায়ত্বশাসিত এবং ব্যক্তিমালিকানাধীন প্রতিষ্টানের কর্মকর্তা, কর্মচারীদের প্রতিষ্টানের নিজ খরচে করোনা নমুনা পরীক্ষা করার উদ্যোগ গ্রহণের আহবান জানান। তাছাড়া শিক্ষার্থী এবং হত দরিদ্রদের সম্পূর্ণ বিনামূল্যে করোনা নমুনা পরীক্ষার সুযোগ দানের অনুরোধ জানান তিনি।