বৃষ্টি কোনো অজুহাত নয় ক্রিকেটারদের কাছে

বাংলাদেশ মেইল :: 

মঙ্গলবার সারাদিনই কাঁদলো আকাশ। তবে বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের অনুশীলনে বাধা হতে পারেনি শ্রাবণধারা। মিরপুরে বৃষ্টি মাথায় নিয়ে রানিং করলেন মুশফিকুর রহীম। ফেসবুকে একটি ভিডিও পোস্ট করে মুশফিক ক্যাপশন লিখেছেন, ‘বৃষ্টি কোনো অজুহাত নয়, শুধু প্রস্তুত হও এবং দৌড়াও।’
গতকাল ছিল ঢাকায় অবস্থানরত ক্রিকেটারদের ব্যক্তিগত অনুশীলনের তৃতীয় দিন। মুশফিকসহ এদিন মোট চার ক্রিকেটার অনুশীলন করেন। সকাল সকালই মাঠে চলে এসেছিলেন শফিউল ইসলাম ও মুশফিকুর রহীম। এরপর তাদের সঙ্গী হন ইমরুল কায়েস ও পেসার মেহেদী হাসান রানা।

মিরপুর একাডেমির মাঠে সকাল সাড়ে নয়টায় রানিং শুরু করেন শফিউল ইসলাম। তখন গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি ঝরছে। বিসিবি’র নির্ধারিত শিডিউল মেনে ৩০ মিনিট রানিং করে ফিরে যান এই পেসার। অন্যদিকে ইনডোরে ১ ঘণ্টা ব্যাটিং অনুশীলন করে এরপর রানিংয়ে নামেন উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান মুশফিক। মুশফিকের রানিং শেষে আসেন ইমরুল কায়েস। তখনই মুষলধারে শুরু হয় বৃষ্টি। তবে ইমরুল থামেন নি। আধঘণ্টা রানিং চলে তার। শেষে রানিংয়ে আসেন মেহেদী হাসান রানা। তিনিও দৌড়ান মিনিট ত্রিশেক। মুশফিকদের প্রথম পর্বের এই অনুশীলন চলবে ২৬শে জুলাই পর্যন্ত। ক্রিকেটারদের ফিটনেসের কথা ভেবে মিরপুর ছাড়াও চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম, সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম ও খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে ব্যক্তিগত অনুশীলনের ব্যবস্থা করে দিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। করোনা প্রটোকল মেনেই চলছে তাদের অনুশীলন। তবে দীর্ঘদিন বাদে অনুশীলন করতে গিয়ে বেশকিছু সমস্যা দেখতে পাচ্ছেন ক্রিকেটাররা। যেমন অল্প দৌড়াতেই হাঁপিয়ে যাচ্ছেন। সোমবার ব্যাটিং অনুশীলন করতে গিয়ে ফোসকা পড়ে যায় ইমরুলের। তবে নিজেদের ভালোর জন্যই এমন অনুশীলন চালিয়ে যেতে চান ক্রিকেটাররা। এর আগে ইমরুল বলেছিলেন, আশা করি- এই সুযোগটাকে আমরা কাজে লাগাতে পারবো। আমাদের এখন সময় আছে, আমরা নিজেদের স্কিল বা ফিটনেস নিয়ে কাজ করতে পারবো। আমার মনে হয় এটা খুব ভালো একটা সময় ক্রিকেটারদের জন্য, যদি এই সময়টুকু সঠিকভাবে কাজে লাগাতে পারি। আমার মনে হয়, স্কিল এবং ফিটনেসের দিক দিয়ে আরেক ধাপ এগিয়ে যেতে পারবো।