প্রিয়াংকার মানবিক উদ্যোগ

বাংলাদেশ মেইল::

বন্যাবিধ্বস্ত আসামের পাশে দাঁড়িয়ে অর্থসাহায্য পাঠালেন বলিউড অভিনেত্রী প্রিয়াংকা চোপড়া। ফের সচেতন নাগরিক হিসেবে দায়িত্ববোধ এবং মানবিকতার নজির রাখলেন এই অভিনেত্রী। এই কাজে তাকে পূর্ণ সমর্থন করেছেন স্বামী নিক জোনাস। টুইট করে নিজের অনুরাগীদের আসামের পাশে থাকার আবেদন জানিয়েছেন পিগি চপস। আসামে পর্যটন বিভাগের শুভেচ্ছাদূত ছিলেন এ বলিউড অভিনেত্রী। সেই হিসেবে দায়িত্বের কথা ভুলে যাননি তিনি। বরং এখানকার বন্যার ভয়াবহ ছবি তাকে নিজের দায়িত্ববোধ মনে করিয়ে দিয়েছে। টুইট করে প্রিয়াংকা জানিয়েছেন, গোটা বিশ্ব এখন মহামারীর সঙ্গে লড়ছে।

কিন্তু ভারতের রাজ্য আসামকে বন্যার মতো প্রাকৃতিক দুর্যোগের সঙ্গে লড়তে হচ্ছে। বর্ষার প্রবল বৃষ্টিতে প্লাবিত আসাম। ওদের এখন সাহায্য দরকার। এ এলাকার জন্য যেসব স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন কাজ করছে, তাদের প্রত্যেককে অভিনেত্রী এবং তার স্বামী নিক অর্থ পাঠিয়েছেন বলে টুইটারে জানিয়েছেন প্রিয়াংকা। সেইসঙ্গে যাতে অন্যরাও নিজেদের ত্রাণ সাহায্য পাঠাতে পারেন, তার জন্য টুইটে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলির নাম, ঠিকানাও উল্লেখ করেছেন তিনি।
আসামের বন্যায় সবচেয়ে খারাপ পরিস্থিতি কাজিরাঙ্গা জাতীয় উদ্যানের। বন্যার জলে ডুবেছে অরণ্যের ৯২ শতাংশ। শতাধিক বন্যপ্রাণীর মৃত্যু হয়েছে। অনেকে ভয়ে জঙ্গল ছেড়ে পালিয়েছে। তাদের উদ্ধার করে স্বস্থানে ফেরাতে রীতিমত হিমশিম দশা বনকর্তাদের। এছাড়া ব্রহ্মপুত্র লাগোয়া প্রায় ২২ টি জেলার পরিস্থিতি বেশ খারাপ। এখনও পর্যন্ত প্রাণহানির সংখ্যা ১০০ ছুঁইছুঁই। ত্রাণশিবিরগুলির পরিবেশও বিশেষ ভাল নয়। সেখানে ঠাঁই নেওয়া মানুষজনও অত্যন্ত সমস্যার মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন। এই মুহূর্তে অর্থ সাহায্য খুবই প্রয়োজন। কেন্দ্র, রাজ্য সেই সাহায্য করলেও প্রয়োজনের তুলনায় তা যেন খানিকটা কমই। এই অবস্থায় বলিউড অভিনেত্রী এবং তার স্বামীর মানবিক উদ্যোগ আসামবাসীকে অনেকটাই স্বস্তি দিল। তারা রাজ্যের প্রাক্তন পর্যটন দূত তথা সেলিব্রিটিকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।