নাজিরহাট বড় মাদ্রাসার নিয়ে আল্লামা শফির বিরুদ্ধে মামলা

বাংলাদেশ মেইল ::  

শূরা কমিটি কর্তৃক গৃহীত সিদ্ধান্তকে প্রত্যাখ্যান করে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ এর আমীর ও আল জামিয়াতুল আহলিয়া দারুল উলূম মঈনুল ইসলাম মাদ্রাসার মহাপরিচালক আল্লামা শাহ্ আহমদ শফির বিরুদ্ধে নাজিরহাট বড় মাদ্রাসার শিক্ষক মুফতি হাবীবুর রহমান কাসেমী বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন।

মামলাটি গত (২৮ জুলাই ২০২০) তারিখে চট্টগ্রাম যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ ২য় আদালতে মামলাটি দায়ের করা হয়েছে। আদালত সুত্র জানায় এ মামলার  নাম্বার -১৬৫/২০২০।

এইদিকে মামলার নিন্দা জানিয়ে হাটহাজারী বড় মাদ্রাসার সহযোগী পরিচালক আল্লামা শেখ আহমদের সভাপতিত্বে হেফাজত ইসলামের আমীর আল্লামা শাহ্ আহমদ শফির কার্যালয়ে শীর্ষ আসাতাযায়ে কিরাম, শিক্ষক, কর্মকর্তা ও শিক্ষার্থীগনের আয়োজনে এক প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

মুফতি হাবীবুর রহমান কাসেমীর দায়েরকৃত মামলা মিথ্যা ও ষড়যন্ত্র মূলক বলে দাবী করে প্রতিবাদ সভায় বক্তারা বলেন গত (৭জুন) হাটহাজারী বড় মাদ্রাসার মহাপরিচালকের কার্যালয়ে নাজিরহাট বড় মাদ্রাসার মুহাতামিমের শূন্য পদ পূরণের লক্ষে মজলিসে শূরার অধিবেশন আহবান করা হলে মহাপরিচালক আল্লামা শাহ্ আহমদ শফির সভাপতিত্বে মজলিসে শূরার এক তৃতীয়াংশের অধিক সদস্যদের উপস্থিতিতে বৈঠকে কোরাম পূর্ণ হওয়ায় উপস্থিত সদস্যদের সর্বসম্মতিক্রমে নাজিরহাট বড় মাদ্রাসার মুহাদ্দিস মাওলানা সলিমুল্লাহকে মুহাতামিম হিসেবে নিযুক্ত করা হয়েছে।

কিন্তু মজলিস এর শূরা কমিটি কর্তৃক গৃহীত সিদ্ধান্তকে প্রত্যাখ্যান করে সম্পূর্ণ নিয়ম বহির্ভূত ও বেআইনি ভাবে আল্লামা শাহ্ আহমদ শফি সাহেবকে প্রধান আসামী করে শূরার সদস্যদের বিরুদ্ধে নাজিরহাট বড় মাদ্রাসার শিক্ষক মুফতি হাবীবুর রহমান কাসেমী বাদী হয়ে এই মিথ্যা মামলাটি দায়ের করেন।

যা খুবই জঘন্যতম, ধৃষ্টতা পূর্ণ ও ন্যক্কারজনক বলেন এবং প্রতিবাদ সভা থেকে বক্তারা ষড়যন্ত্র মূলক মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের জোর দাবী জানান।

এদিকে আবার গণমাধ্যমে পৃথক বিবৃতি দিয়ে আল্লামা শাহ্ আহমদ শফি সাহেবসহ শূরা কমিটিকে দেওয়া মিথ্যা মামলার নিন্দা ও তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ এর মহাসচিব আল্লামা জুনাঈদ বাবুনগরী।

গতকাল (১০ আগস্ট ২০২০) সোমবার রাতে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সভায় উপস্থিত ছিলেন, হেফাজত ইসলামের মহাসচিব আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরী, মাওলানা শোয়াইব, মাওলানা ইয়াহইয়া, মাওলানা কবির আহমদ, মাওলানা মুফতী জসীম, মাওলানা ওমর, মাওলানা মুফতী কিফায়াতুল্লাহ, মাওলানা আহমদ দিদার, মাওলানা ফুরকান আহমদ, মাওলানা আশরাফ আলী নিজামপুরী, মাওলানা আনাস মাদানী, মাওলানা মুহাম্মদ (গহিরা), মাওলানা নুরুল ইসলাম, মাওলানা মুহাম্মদ (গড়দুয়ারা), মাওলানা মুফতী আবু সাঈদ, মাওলানা মুফতী রাশেদ, মাওলানা মুফতী ওসমান, মাওলানা শোয়াইব (আলমপুর), মাওলানা তকীউদ্দীন আজিজ, মাওলানা শফিউল আলম , মাস্টার রফিক, মাওলানা জাহিদুল্লাহ খান প্রমুখ।