চসিকের ৩৬ ওয়ার্ড সচিব বদলি, ৫ জনকে প্রত্যাহার

বাংলাদেশ মেইল:: 

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) ৪১টি ওয়ার্ডের ৩৬ জন সচিবকে একযোগে বদলি এবং বাকি পাঁচ জনকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। এর আগে চসিকে দুই দফায় ৪০ কর্মকর্তা-কর্মচারীকে বদলি করা হয়েছিল।

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের প্রশাসক হিসেবে যোগদানের ১২ দিনের মধ্যেই দফায় দফায় এসব রদবদল আনছেন খোরশেদ আলম সুজন।

সোমবার (১৭ আগস্ট) চসিকের সচিব আবু শাহেদ চৌধুরীর সই করা অফিস আদেশের মাধ্যমে ৪১ ওয়ার্ডের সচিব পদে রদবদল করা হয়েছে। তাদের দুই দিনের মধ্যে বদলি হওয়া কর্মস্থলে যোগ দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

জানতে চাইলে সচিব আবু শাহেদ চৌধুরী বলেন, ‘প্রশাসক মহোদয়ের অনুমোদনক্রমে ৪১ ওয়ার্ডের সচিব পদে আমরা রদবদল করেছি। এর মধ্যে পাঁচ জনকে প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়েছে। বাকিদের বর্তমান কর্মস্থল থেকে অন্য ওয়ার্ডে বদলি করা হয়েছে। ওয়ার্ড পর্যায়ে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের কার্যক্রমে গতি আনতে এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।’

গত ৫ আগস্ট চসিকের পঞ্চম নির্বাচিত পরিষদের মেয়াদ শেষ হয়। মেয়রের সঙ্গে নির্বাচিত ৪১ জন ওয়ার্ড কাউন্সিলর এবং ১৪ জন সংরক্ষিত ওয়ার্ডের নারী কাউন্সিলরের মেয়াদও একইদিন শেষ হয়। এর একদিন আগে প্রশাসক পদে খোরশেদ আলম সুজনকে নিয়োগ দেওয়া হয়। ৬ আগস্ট তিনি দায়িত্ব নেন।

কাউন্সিলরশূন্য ওয়ার্ডগুলোর কার্যক্রম দেখভালের জন্য গত ১৩ আগস্ট তিন কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দেন চসিক প্রশাসক। এদের মধ্যে চসিকের প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মুফিদুল আলম নগরীর এক থেকে ১৪ নম্বর ওয়ার্ড, প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা ১৫ নম্বর থেকে ২৮ নম্বর ওয়ার্ড এবং সচিব আবু শাহেদ চৌধুরী ২৯ নম্বর থেকে ৪১ নম্বর ওয়ার্ডের কার্যক্রম দেখভালের দায়িত্ব পান।

গত ১২ আগস্ট চসিকের রাজস্ব বিভাগের ২৪ জন এবং ভূসম্পদ বিভাগের ১৫ জন
কর্মকর্তা-কর্মচারীকে একযোগে বদলি করা হয়। এছাড়া বদলি করা হয়েছে মেয়রের ব্যক্তিগত কর্মকর্তাকেও।