আইপিএল শুরু আজ, আলোচনায় ‘কোয়ারেন্টিন’

বাংলাদেশ মেইল ::

ভিন্ন চ্যালেঞ্জ আর নানা রকম বাধা পেরিয়ে আজ মাঠে গড়াচ্ছে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগের (আইপিএল) ত্রয়োদশ আসর। আরব আমিরাতের আবুধাবি শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে আজ উদ্বোধনী ম্যাচে লড়বে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স ও চেন্নাই সুপার কিংস। গতবার ফাইনালে মুখোমুখি হয়েছিল আসরের সবচেয়ে সফল দল দুটি। চেন্নাইকে হারিয়ে রেকর্ড চতুর্থ শিরোপা জিতে নেয় মুম্বই। এবারের আসরে শুরুর দিনটা তাই ‘প্রতিশোধের’ মঞ্চে পরিণত।
কোন দল শিরোপা জিতবে, কারাই বা শিরোপার দাবিদার- আসর শুরুর আগে এসব নিয়েই মূলত আলোচনা হয়। তবে করোনা মহামারি পাল্টে দিয়েছে সব। মাঠের চেয়ে বাইরের ঘটনাই এখন বেশি আলোচিত। ক্রিকেটের সঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ অংশ হয়ে গেছে কোয়ারেন্টিন শব্দটি।

আইপিএলও ব্যতিক্রম নয়। ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটারদের জন্য ৬ দিনের কোয়ারেন্টিন শিথিল নিয়ে দেনদরবার চলেছে বেশ। তবে পুরোপুরি সফল হননি সর্বশেষ ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়া সিরিজ খেলা ক্রিকেটাররা। কলকাতা নাইট রাইডার্স ও মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের খেলোয়াড়দের থাকতে হবে ছয় দিনের কোয়ারেন্টিনে। বাকিরা দেড়দিন কোয়ারেন্টিনে থেকেই মাঠে নামার অনুমতি পেয়েছেন। কলকাতা ও মুম্বই তাদের ক্যাম্প করেছে আবুধাবিতে। আইপিএলের আয়োজকরা দুবাই ও শারজাহ’র স্থানীয় প্রশাসনকে রাজী করতে পারলেও ব্যর্থ হয়েছে আবুধাবির ক্ষেত্রে। এজন্যই ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটাররা একই বিমানে মরুর দেশে পৌঁছলেও দুই রকম কোয়ারেন্টিন নীতির শিকার হয়েছেন। আবুধাবি বিসিসিআইয়ের অনুরোধে সাড়া না দেয়ায় ক্ষতিগ্রস্ত হবে কলকাতা। আগামী ২৩শে সেপ্টেম্বর মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের বিপক্ষে নাইট রাইডার্স নিজেদের প্রথম ম্যাচে পাবে না এউইন মরগান, প্যাট কামিন্স ও টম ব্যান্টনকে।
‘ভারত-চীন’ সীমান্ত বিরোধের ধাক্কা লেগেছে আইপিএলেও। বিরোধের জেরে ভারতে চীনা পণ্য বয়কটের হিড়িক পড়ে যায়। চীনের মুঠোফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ভিভো আইপিএলের টাইটেল স্পন্সর হওয়ায় বিপাকে পড়ে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)। এবারের আসর থেকে সরে দাঁড়ায় ভিভো। এরপর আলোচনার কেন্দ্রে ছিল মহেন্দ্র সিং ধোনি ও সুরেশ রায়নার আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসরের প্রসঙ্গ। রায়না ও হরভজন সিংয়ের হঠাৎ আইপিএল ছেড়ে দেশে ফিরে যাওয়া নিয়েও ওঠে আলোচনার ঝড়।
ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় আসরটির গায়ে এবার কিছুটা হলেও লেগেছে ‘কলঙ্কের’ দাগ। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নাকি আইপিএল? এই প্রশ্নের উত্তর মেলতে লেগেছে সময়। কোটি কোটি টাকা খরচ করে দল গড়া ফ্র্যাঞ্চাইজিদের চাপ ও বিসিসিআইয়ের ‘সোনার ডিম পাড়া হাঁস’ আইপিএলের সঙ্গে পেরে ওঠেনি ক্রিকেটের সর্বোচ্চ মহলও। বিশ্বকাপ স্থগিত করে আইপিএলের জন্য পথ করে দিতে ‘বাধ্য’ হয় তারা।
এবারের আইপিএলে দর্শকদের জন্য স্টেডিয়ামের দুয়ার বন্ধ। ২০১৪ সালে ভারতের জাতীয় নির্বাচনের কারণে আইপিএলের সপ্তম আসরের প্রথম অংশের কিছু ম্যাচ হয় আরব আমিরাতে। আরো একবার আইপিএলের সব ম্যাচ হয়েছিল ভারতের বাইরে। ২০০৯ সালে ভারতের সাধারণ নির্বাচনের কারণে দক্ষিণ আফ্রিকায় আয়োজিত হয় আইপিএলের দ্বিতীয় আসর।