আওয়ামী যুবলীগের ৪৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী আজ

বাংলাদেশ মেইলঃঃ  

ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন আওয়ামী যুবলীগের ৪৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী আজ। প্রতিষ্ঠার পর থেকেই দেশের সব গণতান্ত্রিক আন্দোলনে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছে যুব সংগঠনটি।

তবে, সংগঠনটির সাতচল্লিশ বছরে কংগ্রেস হয়েছে মাত্র সাতটি। সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শেখ ফজলুল হক মনি নেতৃত্বের কমিটি ছাড়া সব কমিটিরই মেয়াদ ছিলো সর্বনিম্ন সাত বছর। অথচ গঠনতন্ত্রে পূর্নাঙ্গ কমিটির মেয়াদ আছে তিন বছর।

গত বছরের ২৩শে নভেম্বর সপ্তম কংগ্রেসে যুবলীগের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন শেখ ফজলে শামস পরশ এবং সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিল। সংগঠনটির অতীতের ধারাবাহিকতায় যুবলীগের সবশেষ এই কংগ্রেসও হয়েছে সাত বছর পর।

 

১৯৭২ সালে আহবায়ক কমিটি হওয়ার পর আওয়ামী যুবলীগের প্রথম কংগ্রেস হয় ১৯৭৪ সালে। প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান হন শেখ ফজলুল হক মনি। এরপর ১৯৭৫ সালে তার মৃত্যুর পর দ্বিতীয় কংগ্রেস ১৯৭৮ এবং তৃতীয় কংগ্রেস হয় আট বছর পর। চতুর্থ কংগ্রেস ১০ বছর পর, পঞ্চম কংগ্রেস ৭ বছর এবং ষষ্ট কংগ্রেস হয় ৯ বছর পরে।

এরপরও যুবলীগ নেতাদের কারণে বিতর্কের মুখে পড়ছে সংগঠনটির ভাবমূর্তি। তারপরও বিতর্কের কালিমা মুছে প্রতিষ্ঠাকালীন আদর্শে ফেরার প্রত্যয় জানিয়েছেন যুবলীগের সদস্যরা।

দায়িত্ব গ্রহণের পর প্রথম বছরই করোনার কারনে সংগঠন চেষ্টা করেছে মানবিক কর্মসূচীতে সবাইকে সম্পৃক্ত করার। বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ বলেন,’রাজনীতির বেসিক প্রিন্সিপাল হচ্ছে মানুষের সেবা করা। মানুষের পাশে দাঁড়ানো। নির্যাতিত, নিপিড়ীত মানুষের পাশে দাঁড়ানো। যার জন্য বঙ্গবন্ধুও সংগ্রাম করেছেন এবং রাজনীতি করেছেন ওই বেসিক প্রিন্সিপালে ফেরত যাওয়া।’

বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিল,’যে কারণে বঙ্গবন্ধু যুবলীগ প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। মনি ভাইকে নির্দেশনা দিয়েছিলেন, যুদ্ধবিদ্ধস্ত দেশের মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য। মানুষের কল্যাণে কাজ করার জন্য, বর্তমান যুবলীগ কিন্তু সেই পথেই হাঁটছে।’

সংগঠনটির সাবেক নেতাদের দাবি, হাজারো নেতিবাচক খবরে কোণঠাসা হওয়ার পরও বর্তমান কমিটি চেষ্টা করছে ভালো কিছু করার। বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ সাবেক চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর কবীর নানক জানান,’কাউন্সিল সময়মতো অনুষ্ঠিত হওয়া উচিত। আর কাউন্সিল সময়মতো অনষ্ঠিত হলে দলের ভেতরে কোন নেতা প্রভুত্ব করতে পারে না।’

জাতির পিতার আদর্শে উজ্জীবিত, পরিচ্ছন্ন নেতৃত্বের জন্য এখন সবাই তাকিয়ে আছে পূর্ণাঙ্গ যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির জন্য ।