গোলাগুলিতে ইয়াবা কারবারি নিহত, ২ লাখের বেশি ইয়াবা উদ্ধার

বাংলাদেশ মেইলঃঃ  

কক্সবাজারের টেকনাফের নাফ নদীতে বিজিবির টহল দলের সঙ্গে গোলাগুলিতে এক ইয়াবা কারবারি নিহত হয়েছেন। এ সময় ঘটনাস্থলে থেকে ২ লাখ ১০ হাজার ইয়াবা, অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার হয়েছে। আজ শনিবার ভোররাতে টেকনাফের নাফ নদীর এক নম্বর স্লুইচ গেট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে টেকনাফ ২ বিজিবি অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মোহাম্মদ ফয়সাল হাসান খান জানান, নাফ নদী হয়ে পার্শ্ববর্তী দেশ মিয়ানমার থেকে ইয়াবার একটি বড় চালান আসতে পারে- এমন গোপন খবরের ভিত্তিতে টেকনাফ সদর বিওপি এলাকার এক নম্বর স্লুইস গেট সংলগ্ন এলাকায় স্পিডবোটে টহল জোরদার করে বিজিবির একটি টহল দল। শনিবার ভোররাতের দিকে নাফ নদীর শূন্য রেখা অতিক্রম করে একটি কাঠের নৌকায় তিনজন লোক বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের চেষ্টা করলে বিজিবির টহল দল তাদের চ্যালেঞ্জ করে। এ সময় নৌকায় থাকা ইয়াবা কারবারিরা বিজিবিকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়ে।

পরে আত্মরক্ষার্থে বিজিবিও পাল্টা গুলি ছুড়ে। ২/৩ মিনিট পর নৌকায় থাকা তিনজনের মধ্যে দুজন সাঁতার কেটে পালিয়ে গেলেও গুলিবিদ্ধ অবস্থায় একজনকে নৌকাসহ জব্দ করে বিজিবি সদস্যরা। পরে আহত কারবারিকে উদ্ধার করে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তাৎক্ষণিকভাবে নিহত ব্যক্তির কোন পরিচয় পাওয়া যায়নি।

পরে ওই নৌকায় তল্লাশি চালিয়ে ২ লাখ ১০ হাজার ইয়াবা, একটি এল জি, দুই রাউন্ড কার্তুজ ও খালি খোসা উদ্ধার করা হয়েছে। গোলাগুলিতে দুজন বিজিবি সদস্য আহত হয়েছেন। তাদের টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। সাম্প্রতিক সময়ে এটি ইয়াবার সবচেয়ে বড় চালান বলেও জানান বিজিবি অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মোহাম্মদ ফয়সাল হাসান খান।