জাহাজ ভাঙ্গা শিল্পের বড় সমস্যা শ্রমিকের প্রানহানি

  • জাহাজ ভাঙা ও পুনঃপ্রক্রিয়াজাতকরণ শিল্পের বড় সমস্যা শিপইয়ার্ডে শ্রমিকদের প্রাণহানির অব্যাহত ঘটনা। যার কারণে এ শিল্পের ভাবমূর্তি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। আর শ্রমিকদের কাজের ক্ষেত্রে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা সরঞ্জাম এবং পর্যাপ্ত প্রশিক্ষণের অভাবই এই সমস্যার প্রধান কারণ বলে মন্তব্য করেছেন জাহাজ ভাঙা শ্রমিকদের নিয়ে কাজ করা ইপসার কো-অর্ডিনেটর মো. আলী শাহীন।

গত বৃহস্পতিবার (১০ ডিসেম্বর) বিকালে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপনকালে তিনি এসব কথা বলেন। এসময় জাহাজ ভাঙা শ্রমিকদের নিরাপত্তায় ১১ দফা সুপারিশ করা হয়েছে। সংবাদ সম্মেলনের পর বিভিন্ন সময়ে প্রাণহানি হওয়া জাহাজ ভাঙা শ্রমিকদের স্মরণে প্রেসক্লাব চত্বরে প্রদীপ প্রজ্জ্বলন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে মো. আলী শাহীন বলেন, সাধারণত শীতের শুরুতেই দুর্ঘটনার পরিমাণ বাড়তে থাকে এবং বছরের অন্য সময়ের তুলনায় শ্রমিকের হতাহতের ঘটনাও বেশি। চলতি বছর নানা দুর্ঘটনায় ইতোমধ্যে সাতজন শ্রমিকের প্রাণহানি ঘটেছে। গত ১৫ বছরে বিভিন্ন জাহাজভাঙা ইয়ার্ডে ২১৬ জন শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। গত ৫ বছরে মারা গেছেন ৭৫ জন শ্রমিক। বছরওয়ারী শ্রমিকদের প্রাণহানির সংখ্যা প্রমাণ করে এই শিল্পের ঝুঁকির পরিমাণ।

ইপসার প্রোগ্রাম অফিসার ওমর সাহেদ হিরোর সঞ্চালনায় সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন জেসমিন সুলতানা পারু, উৎপল বড়ুয়া, মো. আলী, আনোয়ারুল ইসলাম বাপ্পী প্রমুখ।