কর্ণফুলী টানেলের আনোয়ারা প্রান্ত থেকে শুরু হয়েছে দ্বিতীয় টিউবের নির্মাণ কাজ

 

ইকবাল বাহার, (আনোয়ারা প্রতিনিধি) ::

কর্ণফুলী নদীর তলেদেশে নির্মাণাধীন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান টানেলের দ্বিতীয় টিউবের নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে । টানেলের আনোয়ারা প্রান্ত থেকে দ্বিতীয় টিউব নির্মাণের এ কাজ শুরু হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে চট্টগ্রামকে চীনের সাংহাইয়ের আদলে ওয়ান সিটি টু টাউন করার স্বপ্ন আরো এক ধাপ এগিয়ে গেল।

আজ শনিবার দুপুরে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এ কাজ উদ্বোধন করেন। এসময় সেতুমন্ত্রী বলেন, প্রকল্পের ৬১ ভাগ কাজ শেষ হয়েছে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান টানেল নির্মাণের মাধমে চট্টগ্রাম শহর চীনের সাংহাইয়ের মত গড়ে উঠবে। ঢাকা-চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারের মধ্যে আধুনিক যোগাযোগ ব্যবস্থা গড়ে উঠার পাশাপাশি এশিয়ান হাইওয়ের সাথে সংযোগ স্থাপিত হবে।
এসময় ভার্চুয়াল প্লাটফর্মে যুক্ত ছিলেন ঢাকা থেকে ভূমিমন্ত্রী ও আনোয়ারা-কর্ণফুলী আসনের সাংসদ সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ,মন্ত্রীপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম, সেতু বিভাগের সচিব মোঃ বেলায়েত হোসেন, প্রকল্প পরিচালক হারুন উর রশিদ। এসময় সরকারের উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা , নৌবাহিনীর কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

প্রকল্প ব্যয় ধরা হয়েছে ৯ হাজার ৮৮০ কোটি টাকা। ২০২২ সালের মধ্যে বৃহত এ প্রকল্প বাস্তবায়নের কথা রয়েছে। ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না কমিউনিকেশনস কনস্ট্রাকশন কোম্পানি এই টানেল নির্মণের কাজ করছে।

এর আগে ২০১৯ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই টানেলের নির্মাণ কাজ উদ্বোধন করেন।

প্রকল্প পরিচালক প্রকৌশলী হারুনুর রশিদ বলেন,মূল টানেল ৩ দশমিক ৩১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ। এর মধ্যে গাড়ি আসা-যাওয়া করবে দুটি আলাদা টিউবে। প্রথম টিউব থেকে ১২ মিটার দূরে দ্বিতীয় টিউবটি করা হচ্ছে। প্রতিটি টিউব ২ দশমিক ৪৫০ কিলোমিটার দীর্ঘ। তিনি আরো বলেন, চীন থেকে আনা টানেল বোরিং মেশিন -টিবিএম ইতোমধ্যে বসে গেছে আনোয়ারা পয়েন্টে। প্রথম টিউব স্থাপনে টিবিএম পতেঙ্গা প্রান্তে ঢুকে আনোয়ারা প্রান্তে বের হয়েছে। এবার আনোয়ার প্রান্ত থেকে নদী তলদেশে ঢুকে খোদাই করে পতেঙ্গা অংশে বের হবে।