চট্টগ্রামের নতুনব্রিজ এলাকায় ২ কোটি টাকার ইয়াবাসহ এক কাভার্ডভ্যান চালক ও সহযোগী আটক

 

বাংলাদেশ মেইল-

চট্টগ্রাম নগরীর কর্ণফুলী থানাধীন শাহ আমানত সেতু এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৩৮,০৮০ পিস ইয়াবাসহ ২ জন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‌্যাব-৭। এসময় মাদক পরিবহনে ব্যবহৃত একটি কাভার্ডভ্যান জব্দ করা হয়।

আটককৃত আসামী নোয়াখালী জেলার বেগমগঞ্জ থানাধীন শরীফপুর এলাকার মৃত বিল্লাল মিয়ার ছেলে চালক মোঃ রুবেল মিয়া ওরফে সুমন (২২) এবং নগরীর আকবরশাহ এলাকার আব্দুল মান্নানের ছেলে হেলপার মোঃ ইউনূছ (২৭)।

গতকাল শুক্রবার ( ১১ ডিসেম্বর) সাড়ে ৮ টার দিকে তাদের আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন র‍্যাব-৭ এর সহকারী পরিচালক মিডিয়া সিনিয়র এএসপি মোঃ মাহমুদুল হাসান মামুন।

র‌্যাব-৭, এর সহকারী পরিচালক এএসপি মাশকুর রহমান জানান,গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আমরা জানতে পারি যে, কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী কাভার্ডভ্যানযোগে বিপুল পরিমান মাদকদ্রব্য নিয়ে কক্সবাজার হতে চট্টগ্রামের দিকে আসছে। এমন তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-৭ এর একটি টহল দল চট্টগ্রাম মহানগরীর কর্ণফুলী থানাধীন শাহ আমানত সেতু সংলগ্ন টোলপ্লাজা কার্যালয়ের সামনে একটি বিশেষ চেকপোস্ট মাধ্যমে গাড়ি তল্লাশি শুরু করে। এসময় সন্দেহজনক গতিবিধির একটি কাভার্ডভ্যান র‌্যাবের চেকপোস্টের সামনে থামিয়ে দুইজন পালানোর চেষ্টা করলে র‌্যাব সদস্যরা আটক করে। পরে আটককৃত আসামীদের ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে তাদের দেখানো ও সনাক্তমতে নিজ হেফাজতে থাকা কাভার্ডভ্যানের ভিতরে একটি ট্রাভেল ব্যাগ হতে বিশেষ কায়দায় রক্ষিত অবস্থায় ৩৮,০৮০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরও জানান, গ্রেফতারকৃত আসামীদের জিজ্ঞাসাবাদে আরো জানা যায়, তারা দীর্ঘ দিন যাবৎ কক্সবাজার জেলার সীমান্তবর্তী এলাকা হতে মাদকদ্রব্য সংগ্রহ করে পরবর্তীতে বিভিন্ন কৌশলে চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের মাদক ব্যবসায়ীদের নিকট বিক্রয় করে আসছে। উদ্ধারকৃত মাদকদ্রব্যের আনুমানিক মূল্য ১ কোটি ৯০ লক্ষ টাকা এবং জব্দকৃত কাভার্ডভ্যানের অনুমানিক মূল্য ০১ কোটি টাকা।

গ্রেফতারকৃত আসামিকে চট্টগাম মহানগরীর কর্ণফুলী থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।