চট্টগ্রামের লোহাগাড়া ও কক্সবাজারে র‌্যাবের অভিযানে বিপুল পরিমান ইয়াবা সহ আটক ৭।

 বাংলাদেশ মেইল ::

চট্টগ্রামের লোহাগাড়া ও কক্সবাজারের উখিয়ায় পৃথক পৃথক স্থানে অভিযান চালিয়ে ১৫ হাজার ৭৬৩ পিস ইয়াবাসহ ৭ জনকে আটক করেছে র‌্যাব ৭। জব্দকৃত ইয়াবার মূল্য আনুমানিক ৭৯ লাখ টাকা।   এই সময় ইয়াবা প্রাচারে ব্যবহৃত একটি বাস ও জব্দ করা হয়েছে।

রবিবার ও সোমবার (১৩ ও ১৪ ডিসেম্বর) ওই এলাকাগুলোতে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়।

ইয়াবাসহ আটককৃতরা হলেন কক্সবাজার উখিয়া কুতুপালং এলাকার মৃত মনিন্দ্র দেবনাথের ছেলে লিটন দেবনাথ (৪০), চট্টগ্রাম ইপিজেড বন্দরটিলার মৃত সাধন দেবনাথের ছেলে রাজীব দেবনাথ (২৫), উখিয়া ট্যাংকখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বাসিন্দা মো. জহির আহমেদের ছেলে মো. ইলিয়াস (২৪), একই ক্যাম্পের মো. হাছু মিয়ার ছেলে মো. নূর আলম (২০) ও রশিদ আহমদের ছেলে আবু তাহের (৩৮), কুড়িগ্রাম রৌমারি এলাকার মৃত সাহেব আলীর ছেলে বাস হেলপার মো. একরামুল হক (৪০) এবং একই এলাকার মো. মিরাজুলের ছেলে মো. বকুল মিয়া (২৩)।

র‌্যাব-৭ এর লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের সহকারী পরিচালক (এএসপি) মো. নুরুল আবছার সাংবাদিকদের  এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। আটককৃতদের বিরুদ্ধে পৃথকভাবে লোহাগড়া ও কক্সবাজারের উখিয়া থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

তিনি বলেন, কক্সবাজার জেলার উখিয়া থানার কুতুপালং বাজার সংলগ্ন ছমিউদ্দিন উকিলের ভাড়া বাসায় কয়েকজন মাদক  কারবারি মাদকদ্রব্য ক্রয়-বিক্রয়ের জন্য অবস্থানের খবর পেয়ে র‌্যাবের একটি আভিযানিক দল ঘটনাস্থলে অভিযান চালালে পালিয়ে যাওয়ার সময় তিন রোহিঙ্গা মাদক কারবারিসহ ৫ জনকে আটক করে। এসময় তাদের দেহ তল্লাশি করে হাতে থাকা প্লাস্টিকের ব্যাগ থেকে ১৩ হাজার ৮০০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরও বলেন, অন্যদিকে কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী বাসযোগে বিপুল পরিমাণ মাদকদ্রব্য নিয়ে কক্সবাজার থেকে ঢাকার উদ্দেশে চট্টগ্রামের দিকে আসছে সংবাদের ভিত্তিতে ১৩ ডিসেম্বর রাতে র‌্যাব-৭ এর একটি আভিযানিক দল লোহাগাড়ার চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ক সংলগ্ন মিডওয়ে ইন রেঁস্তোরার সামনে পাকা রাস্তার উপর একটি বিশেষ চেকপোস্ট বসিয়ে গাড়ি তল্লাশি শুরু করে। এসময় সেন্টমার্টিন প্লাস নামে যাত্রীবাহী একটি বাস তল্লাশি করে সন্দেহজনক দুইজনকে আটক করে। পরে তাদের দেহ তল্লাশি করে ১ হাজার ৯৬৩ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। এসময় বাসটিও (ঢাকা-মেট্রো-ব-১৩-১৫০৮) জব্দ করা হয়।