চট্টগ্রামের ফটিকছড়িতে অবৈধ ইটভাটা গুড়িয়ে দিল জেলা প্রশাসন

বাংলাদেশ মেইল——

চট্টগ্রামের ফটিকছড়িতে অবৈধভাবে গড়ে ওঠা এবং পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র না থাকায় নবনির্মিত জে বি ইটভাটা, এস এন বি ইটভাটা ভেঙে গুঁড়িয়ে দিয়েছে জেলা প্রশাসন। পাশাপাশি  ওই এলাকার এফ বি ইটভাটাকে নবায়ন না থাকায় ৩ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

সোমবার (২৮ ডিসেম্বর) সকালে  উপজেলার পাইন্দং টেকনিক্যাল কলেজের পাশে অভিযান চালিয়ে এ দু’টি ইটভাটা গুঁড়িয়ে দেন পরিবেশ অধিদপ্তর ও জেলা প্রশাসন।

চট্টগ্রাম পরিবেশ অধিদপ্তরের ডিপুটি ডাইরেক্টর (ডিডি) জমির উদ্দীন জানান, চট্টগ্রামের বিভিন্ন উপজেলায় জেলা প্রশাসন কার্যালয়ের লাইসেন্সবিহীন পরিচালিত হচ্ছে অনেক ইটভাটা। এসব অবৈধ ইটভাটার বিরুদ্ধে অধিদপ্তরের নিয়মিত কার্যক্রম হিসেবে অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। চট্টগ্রামের সকল উপজেলায় এ ধরনের অভিযান পরিচালিত হবে এবং এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মারজান হোসাইন বলেন, ‘হাইকোর্টের নির্দেশনা অনুযায়ী চট্টগ্রামের যেসব অবৈধ ইটভাটা রয়েছে সেগুলো ভেঙে ফেলা হবে। পরিবেশ অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী ফটিকছড়ি প্রায় ৪১টি অবৈধ ইটভাটা রয়েছে। পর্যায়ক্রমে সবগুলো ইটভাটা ভেঙে দেয়া হবে। ইট প্রস্তুত ও ভাটা স্থাপন আইন ২০১৩ অনুযায়ী জেলা প্রশাসন কার্যালয়ের লাইসেন্স, পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র, বন বিভাগের ছাড়পত্র প্রয়োজন।’ এ অভিযান অভ্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।

জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মারজান হোসাইনের নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালিত হয়। এসময় পরিবেশ অধিদপ্তরের ডিপুটি ডাইরেক্টর (ডিডি) জমির উদ্দীন, এডিশনাল ডিপুটি ডাইরেক্টর (এডিডি) আফজারুল ইসলাম, ফটিকছড়ি নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সায়েদুল আরেফিনসহ র‍্যাব-৭, ফটিকছড়ি থানা পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।