বিরামপুরে ওসির হস্তক্ষেপে বাল্যবিবাহ বন্ধ,জরিমানা করলেন ইউএনও পরিমল কুমার সরকার

বাংলাদেশ মেইল

দিনাজপুরের বিরামপুর থানার ওসির হস্তক্ষেপে বাল্য বিয়ে থেকে রক্ষা পেল মাদ্রাসা নবম শ্রেণীর শিক্ষার্থী। সে বিরামপুর উপজেলার মুকুন্দপুর ইউনিয়নের স্থানীয় এক মাদ্রাসার শিক্ষার্থী।

এসময় বাল্যবিবাহ করায় আলফাজ হোসেন মুরাদকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা এবং মেয়েকে বাল্যবিবাহ দিবেন না মর্মে মেয়ের বাবার থেকে মুচলেকা নেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন বিরামপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পরিমল কুমার সরকার।

বিরামপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মনিরুজ্জামান জানান, মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০টায় উপজেলার মুকুন্দপুর ইউনিয়নের মল্লিকপুর গ্রামে নবম শ্রেণির এক মাদ্রাসা শিক্ষার্থীর সাথে পৌর শহরের শান্তিমোড় মহল্লার দবির উদ্দিন এর ছেলে আলফাজ হোসেন মুরাদের বিয়ের আয়োজন করা হয়েছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে বিয়ের আসরে পৌঁছে বাল্যবিবাহের অনুষ্ঠান বন্ধ করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানানো হয়।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পরিমল কুমার সরকার জানান, বিরামপুর থানার ওসির মাধ্যমে খবর পেয়ে আলফাজ হোসেন মুরাদকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা এবং মেয়েকে বাল্যবিবাহ দিবেন না মর্মে মেয়ের বাবার থেকে মুচলেকা নেয়া হয়েছে।