রাবেয়া লেইন মহল্লা কমিটির সঙ্গে মতবিনিময়
শেখ হাসিনা দেখিয়ে দিয়েছে পদ্মা সেতু হয়ে গিয়েছে-রেজাউল

বাংলাদেশ মেইল ::

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী ও চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. রেজাউল করিম চৌধুরী বলেছেন, ‘শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বের প্রশংসা এখন বিশ্বজুড়ে। বিশ্বব্যাংকের টাকা ছাড়াই তার সুযোগ্য নেতৃত্বে পদ্মা সেতু এখন দৃশ্যমান। অথচ, একটি রাজনৈতিক দলের নেত্রী বলেছিলেন, শেখ হাসিনা নাকি পদ্মা সেতুর একটি পিলারও বসাতে পারবেন না। শেখ হাসিনা দেখিয়ে দিয়েছে, পদ্মা সেতু হয়ে গিয়েছে।’
তিনি মঙ্গলবার (০৫ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম নগরীর রাবেয়া রহমান লেইন মহল্লা কমিটির সঙ্গে মত বিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
মত বিনিময় সভায় আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী রেজাউল করিম বলেন, ‘চট্টগ্রামের উন্নয়নের দায়িত্ব নিজ কাঁধে তুলে নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী হাসিনা। ইতোমধ্যেই মেগা প্রকল্প চট্টগ্রামের কর্ণফুলী নদীর তলদেশে বঙ্গবন্ধু টানেল নির্মাণের কাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলেছে। বেশ কয়েকটি ফ্লাইওভার নির্মিত হয়েছে। এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে হচ্ছে। মিরসরাই যে ইকোনোমিক জোন হচ্ছে সেখানে ৩০ লাখ মানুষের কর্মসংস্থান হবে। এছাড়াও মাতারবাড়ি গভীর সমুদ্র বন্দর হচ্ছে। চট্টগ্রামকে আরো সমৃদ্ধশালী করার জন্য আমাকে মেয়র প্রার্থী করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।’
বাংলাদেশ এখন বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল উল্লেখ করে রেজাউল করিম বলেন, ‘এক সময় বাংলাদেশকে তলাবিহীন ঝুড়ি বলা হতো। দুর্ভিক্ষের দেশ বলা হতো। সেই দুর্ভিক্ষের দেশকে এখন বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল করেছেন শেখ হাসিনা।’
করোনা মোকাবিলায় শেখ হাসিনার যোগ্য নেতৃত্বে বাংলাদেশ উন্নত দেশগুলোর চেয়েও সফল উল্লেখ করে আ.লীগের মেয়র প্রার্থী রেজাউল বলেন, ‘করোনাকালীন সময়ে আমেরিকা, ব্রিটেন ও ফ্রান্সের মতো উন্নত দেশগুলোর অর্থনীতি যেখানে নিম্নমুখী, সেখানে শেখ হাসিনার দুরদর্শী ও সমযোপযোগী সিদ্ধান্তের কারণে বাংলাদেশের অর্থনীতি উর্ধ্বমুখী। আল্লাহর অশেষ রহমতে আমাদের দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়ে যেখানে সাত হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে, সেখানে আমেরিকার মতো উন্নত দেশে লাখ লাখ মানুষ মারা যাচ্ছে।’
দেশের মানুষ এখন ডিজিটাল বাংলাদেশের সুবিধা ভোগ করছেন উল্লেখ করে রেজাউল করিম বলেন, ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ করতে চেয়েছিলেন জননেত্রী শেখ হাসিনা। তখন অনেকেই উপহাস করেছেন। এখন ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবতা। এই ডিজিটাল বাংলাদেশের কল্যাণে দেশের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে মাত্র দুই মিনিটের মধ্যেই বিকাশে টাকা পাঠানো যায়। বিএনপির আমলে মোবাইলের দাম ছিল নাগালের বাইরে। এখন ৫০০ টাকায় মোবাইল পাওয়া যায়।’
চসিক নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে ভোট দেয়ার আহবান জানিয়ে রেজাউল করিম বলেন, ‘আমি এই নগরীর সন্তান। আপনাদের পরিবারেরই একজন। তাই আপনাদের দোয়া ও নৌকা প্রতীকে ভোট চাইতে এসেছি। আপনাদের ভোটে মেয়র নির্বাচিত হয়ে আমি এই রূপসী চট্টগ্রামকে শ্রেষ্ঠ মডেল সিটি হিসেবে গড়ে তোলতে চাই।’
মেয়র নির্বাচিত হলে হোল্ডিং ট্যাক্স অসহনীয় পর্যায়ে বাড়াবেন না ঘোষণা দিয়ে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী রেজাউল করিম বলেন, ‘আমি মেয়র নির্বাচিত হলে অসহনীয় পর্যায়ে হোল্ডিং ট্যাক্স বাড়ানো হবে না। বিনামূল্যে নগরবাসীর স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে নগরীর ৪১টি ওয়ার্ডে স্বাস্থ্য কেন্দ্র গড়ে তোলা হবে। সন্ত্রাস-মাদকের বিরুদ্ধে মহল্লায় মহল্লায় ভালো মানুষদেরকে নিয়ে প্রতিরোধ কমিটি গড়ে তোলা হবে। থানায় থানায় খেলার মাঠ, বিনোদন কেন্দ্র ও সাংস্কৃতিক কেন্দ্র গড়ে তোলা হবে।’
সকলের সম্মিলিত প্রয়াসে চট্টগ্রামকে বিশ্বমানের নগরী হিসেবে গড়ে তোলা হবে বলে ঘোষণা দিয়ে রেজাউল করিম বলেন, ‘মেয়র নির্বাচিত হলে সকলের পরামর্শক্রমে দায়িত্ব পালন করবো। সম্মিলিত প্রয়াসে চট্টগ্রামকে পরিবেশবান্ধব, সন্ত্রাস ও মাদকমুক্ত বিশ্বমানের নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে চাই।’
এই মত বিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন রাবেয়া রহমান লেইন মহল্লা কমিটির সভাপতি এ্যাডভোকেট শামসুল ইসলাম চৌধুরী। এতে বক্তব্য রাখেন জামাল খান ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর ও আওয়ামী লীগের কাউন্সিলর প্রার্থী শৈবাল দাশ সুমন, সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর প্রার্থী আঞ্জুমান আরা, চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ নেতা চন্দন ধর, জামালখান ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা আবুল হাসেম বাবুল, রাশেদ আলম, আশরাফুল আলম জাহেদ, জাহাঙ্গীর মোস্তফা ও রাবেয়া রহমান লেইন মহল্লা কমিটির যুগ্ম সম্পাদক হাসান তারেক চৌধুরী প্রমুখ।