১০ নং উত্তর কাট্টলী ওয়ার্ড
নিছারের বিরুদ্ধে যুবলীগ নেতাকর্মীদের মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ

বাংলাদেশ মেইলঃঃ

আসন্ন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে নির্বাচনী এলাকা নগরীর ১০ নং ওয়ার্ডে যুবলীগের কর্মীদের বিএনপির কর্মী দেখিয়ে মিথ্যা মামলা দিয়ে নেছার আহমেদ মঞ্জু অহেতুক হয়রানি করছে বলে অভিযোগ করেছেন একই ওয়ার্ডের বিদ্রোহী প্রার্থী যুবলীগ নেতা মনোয়ারুল আলম চৌধুরী নোবেল।

মামলার শিকার ৩ জন যুবলীগ কর্মী হলেন,ফয়সাল আহমেদ মাকসুদ ( মামলা নং ৬৫),  গোলাম রব্বানী রাফি ( মামলা নং ৪১), মোঃ তারেক ( মামলা নং ৩৮)এবং ছাত্রলীগ কর্মী মোঃ ইশতিয়াক( এইচ এস সি ১ বর্ষ) (মামলা নং ৪০) সহ ৮১ জন ও অজ্ঞাতনামা ১২ থেকে ১২ জন।

বৃহস্পতিবার ( ২১ জানুয়ারী) দুপুরে নগরীর আকবর শাহ থানায় এই বিষয়ে অভিযোগ দায়ের করেন নোবেল।

মিথ্যা মামলার প্রতিবাদ জানিয়ে লাটিম মার্কার প্রতীকের বিদ্রোহী প্রার্থী মনোয়ারুল আলম চৌধুরী নোবেল বলেন, বিএনপির আমলে পাহাড়তলী ছিল সন্ত্রাস আর চাঁদাবাজের আতুর ঘর। এইসব দুর্গ ভাঙ্গার জন্য যেসব ছাত্রলীগ-যুবলীগ কর্মী আমার নেতৃত্বে কঠোর ভূমিকা পালন করেছিল সেই সব ছেলেকে বিএনপির কর্মী দেখিয়ে মিথ্যা মামলা দিয়ে নেছার আহমেদ মঞ্জু অহেতুক হয়রানি করছে।

তিনি আরো বলেন,পাহাড়তলী বালিকা বিদ্যালয়ের ঘটনার মামলার শিকার ছাত্রলীগ-যুবলীগ কর্মিরা  আমার সাথে গনসংযোগে ছিল।

সাবেক কাউন্সিলর নেছার আহমেদ মন্জুর প্ররোচনায় এই মামলা করা হয়। তিনি আকবরশাহ থানার সহসভাপতি শওকত আলী চৌধুরীকে সাথে নিয়ে তার নির্বাচনী প্রতীক মিষ্টি কুমরার জন্য ভোট চান । লাটিম প্রতীকের প্রার্থী নোবেল এই মিথ্যা মামলা অবিলম্বে প্রত্যাহার করার দাবী জানান।

মামলার বাদী বাপ্পু কুমার দাশের লিখিত এজাহারে দেখা যায়,গত ২০ জানুয়ারী দুপুর ১২ টার দিকে বিএনপির মনোনীত মেয়র প্রার্থী ডা,শাহাদাত হোসেনের ধানের শীষের প্রতীক নিয়ে গনসংযোগ কালে পাহাড়তলী বালিকা বিদ্যালয়ের ভিতরে প্রবেশ করতে চাইলে স্কুলের প্রধান শিক্ষক ও সহকারী প্রধান শিক্ষক তাদের জানায় যে,ভোট গ্রহনকারী অফিসারদের প্রশিক্ষন চলছে। এটি শুনার পর শাহাতাদের সমর্থকরা লাঠি নিয়ে স্কুলের ভেতরে প্রবেশ করে এবং ভয়ভীতি প্রদর্শনের পাশাপাশি অধ্যক্ষ ও সহকারী অধ্যক্ষকে শারীরিকভাবে লাঞ্চিত করে। এবং বিদ্যালয়ের ভেতরে ভাংচুর চালিয়ে ১ লক্ষ টাকার ক্ষতি সাধন করে।

এই ঘটনায় স্থানীয় যুবলীগ – ছাত্রলীগের কর্মিদের বিএনপি কর্মি সাজিয়ে মামলায় জড়িয়ে দেয়া হয়।