রাশিয়ায় পুতিনবিরোধী বিক্ষোভ, আটক ৩ হাজার

বাংলাদেশ মেইলঃঃ

রাশিয়ায় শতাধিক শহরে প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনবিরোধী বিক্ষোভ হয়েছে। এ সময় বিক্ষোভে অংশ নেওয়া তিন হাজারেরও বেশি নাভালনি সমর্থককে আটক করেছে পুলিশ। আটককৃতদের মধ্যে বেশিরভাগই মস্কো শহরের বাসিন্দা। তারা দেশটির কারাবন্দী বিরোধী দলীয় নেতা অ্যালেক্সেই নাভালনির মুক্তি এবং প্রেসিডেন্ট পুতিনের পদত্যাগের দাবিতে বিক্ষোভে অংশ নিয়েছিল।

শনিবার (২৩ জানুয়ারি) মস্কোতে বিক্ষোভকারীদের ওপর চড়াও হয় পুলিশ। এসময় নাভালনি সমর্থকদের মারধর ও টেনেহিঁচড়ে পুলিশের গাড়িতে তুলতেও দেখা যায়। রাশিয়ার প্রশাসন বিক্ষোভকারীদের কঠোরভাবে দমনের ঘোষণা দিয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, কোনো অননুমোদিত বিক্ষোভ ও উস্কানি সঙ্গে সঙ্গে দমন করা হবে।

পর্যবেক্ষণকারী বেসরকারি সংস্থা ওভিডি ইনফোর বরাত দিয়ে বিবিসি জানিয়েছে, রাশিয়ার শতাধিক শহরে বিক্ষোভ হয়। এসময় কমপক্ষে তিন হাজার ১০০ বিক্ষোভকারীকে আটক করা হয়েছে। এর মধ্যে নাভালনির স্ত্রী ইউলিয়া নাভালনায়া, আইনজীবী ও মুখপাত্রও রয়েছেন। যারা তার ঘনিষ্ঠ সহযোগী হিসেবে পরিচিত।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রশাসনের কড়া নির্দেশের পরেও শনিবার বিক্ষোভকারীরা রাস্তায় বেরিয়ে পড়ে। রাশিয়ার শতাধিক শহরে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। সবচেয়ে বড় বিক্ষোভ হয়েছে মস্কোর পাশকিন স্কয়ারে। সেখানে ৪০ হাজার বিক্ষোভকারী জড়ো হয়ে প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনকে চোর আখ্যা দিয়ে স্লোগান দেয়। তবে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দাবি- বিক্ষোভকারীর সংখ্যা মাত্র চার হাজার।

বিক্ষোভে অংশ নেয়া সের্গেই রাদচেনকো নামের একব্যক্তি বলেন, ভয় নিয়ে বসবাস করতে করতে আমি ক্লান্ত। আজ শুধু নাভালনির জন্য নয়, আমার সন্তানদের জন্য রাস্তায় নেমেছি। কারণ এদেশে কোনো ভবিষ্যৎ নেই।

উল্লেখ্য, গত রোববার (১৭ জানুয়ারি) বার্লিন থেকে রাশিয়ায় ফিরে আসার পর নাভালনিকে গ্রেফতার করা হয়। তার বিরুদ্ধে প্যারোলে মুক্তির শর্তভঙ্গের অভিযোগ করেছে প্রশাসন। গত বছরের আগস্টে তাকে রাশিয়ায় বিষ প্রয়োগে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছিল।