রাঙ্গামাটিতে করোনা টিকাদানে কাজ করবে স্বাস্থ্য বিভাগের ৪১ টিম

বাংলাদেশ মেইলঃঃ

অবশেষে দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর রোববার দুপুরে রাঙামাটি এসে পৌছেছে কোভিড-১৯ এর প্রতিষেধক টিকা। সরকারী ঘোষণানুসারে প্রথম দফায় দেশের অন্যান্য জেলাগুলোর ন্যায় রাঙামাটিতে ১২ হাজার ডোজ করোনার টিকা সুরক্ষিত অবস্থায় জেলার সিভিল সার্জনের হাতে বুঝিয়ে দিয়েছে বেক্সিমকো ফার্মার প্রতিনিধি।

এরআগে, বেলা একটার সময় পুলিশ পাহারায় বেক্সিমকো ফার্মার কাভার্ড ফ্রিজার ভ্যানে করে টিকাগুলো রাঙামাটি জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়স্থ ইপিআই স্টোরে টিকাগুলোএসে পৌঁছায়।

এসময় সিভিল সার্জন ডা: বিপাশ খীসা ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপারসহ স্বাস্থ্য বিভাগের উদ্বর্তন কর্মকর্তাগণ আনুষ্ঠানিকভাবে টিকাগুলো বুঝে নিয়ে ইপিআইয়ের কোল্ডষ্টোরে নির্দিষ্ট্য তাপমাত্রায় টিকাগুলো মজুদ রাখেন।

এসময় উপস্থিত গনমাধ্যমকর্মীদের প্রশ্নের জবাবে সিভিল সার্জন জানিয়েছেন, আমরা নির্দিষ্ট্য তাপমাত্রা মেপে সঠিক পেয়ে টিকাগুলো বুঝে নিয়েছি। তিনি বলেন,আমরা সরকারী নির্দেশনানুসারে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে প্রাথমিকভাবে ১৫টি ক্যাটাগরিতে সর্বমোট ১৯ হাজার জনকে টিকা দেওয়ার জন্য তালিকা করে প্রেরণ করেছি। এক প্রশ্নের জবাবে সিভিল সার্জন জানিয়েছেন এখনো পর্যন্ত আমরা কবে টিকা প্রয়োগ করবো এই ধরনের নির্দেশ ঢাকা থেকে পাইনি। টিকা প্রয়োগের নির্দেশনা পাওয়ার দিন থেকে প্রথম ৫ মাস সময়ের মধ্যে এই ১২ হাজার ডোজ করোনা টিকা প্রদান করা হবে বলে জানিয়েছেন সিভিল সার্জন। তিনি জানান, রাঙামাটি জেলায় করোনা টিকাদানে সর্বমোট ৪১ টিম কাজ করবে। তার মধ্যে রাঙামাটি সেনা রিজিয়নের অধীন সিএমইচ-এ ৪টি, রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে ৮টি, জরুরী ২টিসহ প্রত্যোক উপজেলায় ৩টি করে টিম কাজ করবে। সিভিল সার্জন জানিয়েছেন, প্রত্যেক টিমে ২জন টিকাদানকারি আর ৪ জন ভোলান্টিয়ারসহ মোট ৬ জন সদস্য থাকবে।