হাটহাজারীতে সহকারী কমিশনার (ভূমি) কার্যালয়ে চুরি

হাটহাজারী প্রতিনিধি ::

হাটহাজারী সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট এর কার্যালয়ে চুরির ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার দিবাগত রাতের যে কোন সময় এ ঘটনাটি ঘটে। এ সময় কার্যালয়ের নাজির ও অফিস সহায়কের দুটিসহ তিনটি আলমারি ভেঁঙ্গে নাজির ও অফিস সহায়কের আলমিরাতে রাখা ১লক্ষ ৪৫ হাজার টাকা নিয়ে যায় চোরেরা। বুধবার দুপুরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন হাটহাজারী মডেল থানার ওসি (তদন্ত) রাজীব শর্মা। এ ঘটনায় মামলা করা হবে বলে জানান সহকারী কমিশনার (ভূমি) শরীফ উল্যাহ।
সরেজমিনে নাজিরসহ অনেকের সাথে কথা বলে জানা গেছে, মঙ্গলবার রাতের যে কোন সময় সংঘবদ্ধ চোরের কেউ একজন প্রথমে কার্যালয়ের পেছনের একটি ভেন্টিলেটর দিয়ে প্রবেশ করে। পরে কার্যালয়ের দরজা খুলে বাকীরা প্রবেশ করে নাজির ও অফিস সহায়কদের তিনটি আলমিরার তালা, লক ও ড্রয়ারের তালা ভেঁঙ্গে নগদ টাকা নিয়ে যায়। তবে আলমিরায় থাকা দামি লেপটপসহ অন্যান্য কাগজপত্র যথাস্থানেই ছিল। রাত সাড়ে নয়টার দিকে নাজির একরামুল হক সিকদার, অফিস সহায়ক বোরহান উদ্দিন ও মোঃ হাছান কাজ শেষ করে কার্যালয়ে তালা লাগিয়ে বাড়ি ফেরেন। এ সময় নৈশ প্রহরী মিরাজ চাকমাও উপস্থিত ছিলেন। বুধবার সকালে কার্যালয়ে ফেরে জানতে পারেন আলমিরা ভেঁঙ্গে নাজিরের আলমিরায় নামজারী মামলার ৫৭ হাজার ৬৫০ ও অফিস সহায়কের আলমিরায় নামজারী মামলা ও ঝাড়ুদারদের বেতন বাবদ ৮৭ হাজার ৩৫০ টাকাসহ মোট ১ লক্ষ ৪৫ হাজার টাকা চোরেরা নিয়ে গেছে। নাজির প্রতিবেদককে বলেন, অফিস শেষ করে বাড়ি ফেরার সময় নৈশ প্রহরী উপস্থিত থাকলেও পরে দায়িত্ব পালন না করে অফিসের কাউকে না বলে বাসায় চলে যান। জানতে চাইলে নৈশ প্রহরী মিরাজ চাকমা বলেন, সকাল সাড়ে আটটার দিকে অফিস খুলেই দেখি আলমিরার তালা ভাঙ্গা। পেছনের দরজা বাহির থেকে লক করা। চোরেরা মনে হয় বের হবার পর দরজা পেছন থেকে লক করে গেছে। আমি রাত ১০ টার দিকে বাসায় চলে যাই। নিজ কার্যালয়ের কাউকে বাসায় যাওয়ার কথাটি কেন বলা হয়নি এ প্রশ্নে কোন সদুত্তর দিতে না পারলেও সদর তহসিল অফিসের নৈশ প্রহরী মোঃ শফি (৬৩) কে বলেছিলেন বলে জানান মিরাজ চাকমা।
সহকারী কমিশনার (ভূমি) শরীফ উল্যাহ বলেন, এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে। একজনকে সন্দেহজনকভাবে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশকে সোপর্দ করেছি।
এদিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শনকারী ওসি (তদন্ত) বলেন, আমরা কিছু সিসিটিভির ফুটেজ সংগ্রহ করেছি। তদন্ত করে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে। একজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় আনা হয়েছে।