শাহবাগে বিক্ষোভ থেকে ১০ শিক্ষার্থী আটক

বাংলাদেশ মেইল ::

শাহবাগে বিক্ষোভ থেকে ১০ শিক্ষার্থী আটক
জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থগিত হওয়া পরীক্ষাগুলো নেওয়ার দাবিতে শাহবাগে বিক্ষোভের জন্য জড়ো হওয়ার সময় অন্তত ১০ শিক্ষার্থীকে আটক করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ওই শিক্ষার্থীদের আটক করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাদের নেওয়া হয়েছে শাহবাগ থানায়। তবে তাৎক্ষণিকভাবে ওই শিক্ষার্থীদের নাম-পরিচয় জানা যায়নি৷

আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করে ঢাকা মহানগর পুলিশের রমনা জোনের উপকমিশনার (ডিসি) সাজ্জাদুর রহমান গণমাধ্যমকে জানান, তারা অনলাইনে শাহবাগ মোড় অচল করে দেওয়ার পরিকল্পনা করেছিলেন। তাই আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে আমরা কিছু শিক্ষার্থীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছি।

আটককৃতদের মুক্তির দাবিতে এখনো শাহবাগ মোড়ে অবস্থান করছেন শিক্ষার্থীরা। তাদের দাবি আটককৃতদের মুক্তি না দেয়া পর্যন্ত তারা শাহবাগ ছাড়বেন না।

এদিকে পুলিশ শিক্ষার্থীদের ছত্রভঙ্গ করে দিলেও ফের তারা একত্রিত হয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। এ সময় শিক্ষার্থীরা, ‘আমাদের দাবি, আমাদের দাবি, মানতে হবে মানতে হবে’, ‘আমাদের পরীক্ষা নিতে হবে, নিতে হবে’, ‘শিক্ষা নিয়ে প্রহসন চলবে না, চলবে না’, ‘আমার ভাইয়ের মুক্তি, দিতে হবে দিতে হবে’ ইত্যাদি স্লোগান দিতে থাকেন।

গত সোমবার শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির ঘোষণার পর জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ তাদের চলমান পরীক্ষাগুলো পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

এদিকে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে গতকাল বুধবার জানানো হয়েছে, আগামী ২৪ মে থেকে দেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোয় শ্রেণিকক্ষে পাঠদান কার্যক্রম শুরু হলে সেদিন থেকেই জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থগিত হওয়া পরীক্ষাও শুরু হবে। আজ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থগিত সব পর্যায়ের পরীক্ষার নতুন সময়সূচি ঘোষণা করা হয়।

২০১৯ সালের ডিগ্রি পাস ও সার্টিফিকেট কোর্স দ্বিতীয় বর্ষ স্থগিত পরীক্ষা এবং ২০১৮ সালের মাস্টার্স শেষ পর্বের পরীক্ষাসহ অন্যান্য সব প্রফেশনাল কোর্সের স্থগিত পরীক্ষা ২৪ মে থেকে থেকে শুরু হবে। এছাড়া ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষের প্রথম বর্ষে ভর্তির কার্যক্রম আগামী ৮ জুন থেকে শুরু হবে।

শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য আহবান জানিয়েছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। স্থগিত হয়ে যাওয়া পরীক্ষার বিস্তারিত সংশোধিত সময়সূচি বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়েছে।