নৈতিকতাপূর্ণ মানুষ গঠনে মাদ্রাসা শিক্ষার বিকল্প নেই : নুর খান

বাংলাদেশ মেইলঃঃ

 

হাটহাজারীর বাড়ীঘোনায় মিরাজুন্নবী সা. ও হযরত তিন আওলিয়া (রহঃ) সুন্নিয়া স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসার অনুষ্টানিক উদ্বোধন উপলক্ষে মিলাদ মাহফিল অনুষ্টিত হয়েছে। রবিবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) বাদ আসর হতে অনুষ্টিত মাহফিলে সভাপতিত্ব করেন আলহাজ্ব সৈয়দ জালাল আহমদ।

আজিমুশশান এ মাহফিলে পবিত্র কোরআন তিলাওয়াত করেন মুহাম্মদ রিফাছ। এসময় উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক আলহাজ্ব মুহাম্মদ নূর খান, মুফতি মুহাম্মদ আবুল কাশেম নূরী, মুফতি মুহাম্মদ শাহেদুর রহমান হাশেমি, খাইরুল ইসলাম চিশতি প্রমূখ।

মাহফিলে বক্তারা বলেন, বিশ্বব্যাপী শান্তি প্রতিষ্ঠায় মহানবী (স.)’র আদর্শ প্রতিষ্ঠার বিকল্প নেই। চলমান বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাসে মানুষের কিঞ্চিৎ মানসিক পরিবর্তন হলেও সামগ্রিক চিন্তা চেতনা, সামাজিক ও রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে মহানবী (স.)’র নীতি আদর্শ থেকে যোযন যোযন দুরে থাকায় প্রতিনিয়ত বিপর্যয়ের সম্মুখীন হচ্ছে দেশ ও জাতি। সামগ্রিক সমুহ বিপদ থেকে মুক্তি পেতে সর্বত্র প্রিয় হাবিবের জীবনী চর্চা ও আলোচনা সময়ের দাবি।

মাহফিলের উদ্বোধক আলহাজ্ব মুহাম্মদ নূর খান বলেন,বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় ও শিক্ষামন্ত্রীর আন্তরিকতায় মাদ্রাসা শিক্ষার ব্যাপক উন্নয়ন সাধিত হয়েছে। মাদ্রাসা শিক্ষার উন্নয়নে সরকার নানামূখী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। ইসলামী আরবি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন, মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদপ্তর স্থাপন, শিক্ষকদের বেতন-ভাতা বৃদ্ধির মাধ্যমে মাদ্রাসা শিক্ষাকে আধুনিকায়নের কাজ করছে সরকার।

আদর্শ ও নৈতিকতাসম্পন্ন সমাজ গঠনে মাদ্রাসা শিক্ষকরাও আন্তরিকতার সাথে কাজ করে যাচ্ছেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, সুন্দর সমাজ গঠনে মাদ্রাসা শিক্ষার বিকল্প নেই। মাদরাসা শিক্ষাই হলো প্রকৃত জাতীয় শিক্ষা। এ শিক্ষায় ধর্মের আলোকে মানুষকে সৎ, আদর্শ ও সুশৃঙ্খল হওয়ার পাঠদানের পাশাপাশি প্রশিক্ষণও দেওয়া হয়। নীতি, নৈতিকতা ও আদর্শের উপরই এই শিক্ষার মূল ভিত্তি। দুনিয়াবী ও আখেরাতের যিন্দেগীকে সফল করার পাঠ দেওয়া হয় মাদ্রাসাসমূহে।আমরা যদি সৎ ব্যক্তি, পরিবার, সমাজ ও রাষ্ট্র গড়তে চাই, তবে অতি অবশ্যই মাদ্রাসা শিক্ষাকে ধারণ করতে হবে এবং এগিয়ে নিতে হবে।

মাহফিলে এলাকার বিভিন্ন ধর্মীয় সংগঠন ও বিভিন্ন জেলা, মহানগর থেকে আগত নবী প্রেমিক, ধর্ম প্রেমিক, আশেক ভক্ত অংশগ্রহন করেন।

শেষে দেশ ও জাতির কল্যান কামনায় ধর্মপ্রান মানুষের অংশগ্রহনে মুফতি মুহাম্মদ শাহেদুর রহমান হাশেমি বিশেষ মোনাজাতের মাধ্যমে মাহফিলের সমাপ্তি ঘটান।