বঙ্গবন্ধু নিজেকে সুরক্ষা না করে এই বাঙালিকে ভালোবেসে সব উজাড় করে দিয়ে গেছেন: ড. শিরীণ আখতার

বাংলাদেশ মেইলঃঃ

 

‘বঙ্গবন্ধুকে কখনো একক করে রাখা যায় না। বঙ্গবন্ধু সবার। বঙ্গবন্ধু আমাদের স্বাধীনতা এনে দিয়েছেন। বঙ্গবন্ধু একটা পতাকা এনে দিয়েছেন। আমরা স্বাধীন দেশে আজ কভিড নিয়ন্ত্রণে কাজ করে যাচ্ছি। আমরা বঙ্গবন্ধুকে সব সময় স্মরণ করব। আমরা আমাদের বাঙালির সংস্কৃতি দিয়ে সকল অপশক্তিকে রুখে দিব। কেননা বঙ্গবন্ধু নিজেকে সুরক্ষা না করে এই বাঙালিকে ভালোবেসে সব উজাড় করে দিয়ে গেছেন।’

হাটখোলা ফাউন্ডেশন আয়োজনে ‘মুজিব শতবর্ষ’ উপলক্ষে চট্টগ্রামে কবিতা উৎসব ও সঙ্গীতানুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এসব কথা বলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. শিরীণ আখতার।

শনিবার (১৩ মার্চ) বিকেল সাড়ে ৪টায় নগরীর থিয়েটার ইনস্টিটিউট (টিআইসি) মিলনায়তনে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে হাটখোলা ফাউন্ডেশনের সহ-সভাপতি কাজী রুনু বিলকিসের সভাপতিত্বে অতিথি হিসেবে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এমএ সালাম। এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন আয়োজক কমিটির আহ্বায়ক কবি ও সিনিয়র সাংবাদিক শুকলাল দাশ।

এমএ সালাম তাঁর বক্তব্যে বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর মাধ্যমে বাঙালি জাতি প্রকৃত স্বাধীনতা লাভ করে। বাংলাদেশ মানে বঙ্গবন্ধু, বঙ্গবন্ধু মানে বাংলাদেশ। ইতিহাসে বঙ্গবন্ধুর মতো নেতা পাওয়া দুষ্কর। তবে পৃথিবীতে বহু রাষ্ট্র নায়ক দেখেছি। কিন্তু বঙ্গবন্ধুর মতো প্রকৃত নেতা খুব কমেই রয়েছে। যে বঙ্গবন্ধুর পরতে পরতে বাঙালির জাতির জন্য সংগ্রাম। শেখ মুজিব থেকে তাঁকে বঙ্গবন্ধু, বঙ্গবন্ধু থেকে তাঁকে জাতির পিতা বানিয়েছেন এ দেশের সাধারণ মানুষ। মুজিব শতবর্ষে আমি বলব মহা কাব্যের মহানায়ক হলেন সকলের বঙ্গবন্ধু।’

কবিতা উৎসবে কবিতা পাঠ করেন কবি খুরশীদ আনোয়ার, আবু মুসা চৌধুরী, হোসাইন কবির, জিন্নাহ চৌধুরী, শুকলাল দাশ, মনিরুল মনির, মাধব দীপ, আজিজ কাজল ও মাইনুর নাহার, স্বপন দত্ত, ওমর কায়সার, রিজোয়ান মাহমুদ, আকতার হোসাইন, কামরুল হাসান বাদল, সেলিনা শেলী, ভাগ্যধন বড়ুয়া, আলী প্রয়াস, শাহীন মাহমুদ, রিমঝিম আহমেদ।

আবৃত্তি করেন রাশেদ হাসান, মিলি চৌধুরী, কংকন দাশ, প্রনব চৌধুরী, মিশফাক রাসেল, ফারুক তাহের, বিশ্বজিৎ পাল, সেলিম রেজা সাগর, এটিএম সাইফুর রহমান, রুনা চৌধুরী, বর্ষা চৌধুরী, সেঁজুতি বড়ুয়া ও উমেসিং মারমা ঊর্মি।

সংগীত পরিবেশন করেন শিল্পী আবদুর রহিম, শাহরিয়ার খালেদ, ইকবাল হায়দার ও লাকি দাশ।

অনুষ্ঠান আয়োজনে সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন জেলা পরিষদ চট্টগ্রাম ও ভারতীয় সহকারী হাই কমিশন চট্টগ্রাম।