খালেদা জিয়াকে ঘরে বন্দি করে রেখেছে সরকার

বাংলাদেশ মেইল ::

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে সরকার কৌশল ও কায়দা করে ঘরের মধ্যে বন্দি করে রেখেছে বলে মন্তব্য করেছেন নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না।

শনিবার রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে আয়োজিত এক স্মরণসভা ও দোয়া মাহফিলে তিনি এ মন্তব্য করেন।

‍‌‌‘বিএনপির সাবেক মহাসচিব কে এম ওবায়দুর রহমানের ১৪তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে’ স্মরণসভার আয়োজন করা হয়।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে সরকার কৌশল-কায়দা করে ঘরের মধ্যে বন্দি করে রেখেছে মন্তব্য করে মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, তাদের (সরকার) কথা হচ্ছে, আমরা বেগম জিয়াকে মুক্তি দিয়েছি। কিন্তু আসলে (মুক্তি) দেবো না।

গত কয়েক দিনের বিএনপির রাজপথের কর্মসূচি দেখে মানুষ আশায় বুক বেঁধেছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, মানুষ রাস্তায় নামছে। একটা সময় আসে মানুষ রাস্তায় দাঁড়িয়ে যায়। তখন তাদেরকে রুখা যায় না।

সরকারের বিরুদ্ধে মানুষের গর্জন শোনা যাচ্ছে মন্তব্য করে মান্না বলেন, আমি সাহিত্য করছি না। আর এটা সাহিত্য করার জায়গাও না। আমি এখন পরিষ্কারভাবে বলে দিচ্ছি, মানুষ এখন আর পুলিশকে ভয় করে না। তবে বিএনপিকে সরকার খুব ভয় করে। কারণ তারা জানেন, বিএনপি মাঠে নেমে গেলে তাদের খুব বিপদ হতে পারে।

দেশে যত অপকর্ম হয় সব এই আওয়ামী লীগের লোকেরা করে এই কথা উল্লেখ করে নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক বলেন, নারী ধর্ষণ, জমি লুট এবং বর্জ্য ব্যবসাও নাকি আওয়ামী লীগের নেতারা করে। আর দেশের সব কিছু এখন সরকারের লোকেরা দখল করে নিয়েছে।

‘গতকালকে দেখলাম হিন্দুরা মিছিল করছে তাদের উপর নির্যাতন কেন। শ্রমিকরা মিছিল করছে তাদের পেটে ভাত নাই কেন। এগুলোই সরকার বন্ধ করতে পারেনি।’

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেনের সভাপতিত্বে সভায় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, আবদুস সালাম, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির, সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, শ্যামা ওবায়েদ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।