সেমিনারে বক্তারা
ঔষধ শিল্পে বাংলাদেশ একটি অপার সম্ভাবনার দেশ

বাংলাদেশ মেইলঃঃ

 

 

চট্টগ্রামে ডিজিডিএ’র সহায়তায়”মেডিকেল সরঞ্জামের জন্য জাতীয় মানের নিশ্চয়তার গাইডলাইন (এনকিউএজি)” শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।
ইউসাইড এবং ইউএসপির সহযোগিতায় ওষুধ প্রশাসন কর্তৃক আয়োজিত এ সেমিনার বুধবার (২৪ মার্চ) সকালে চট্টগ্রামের স্থানীয় হোটেলে অনুষ্ঠিত হয়।

“মেডিকেল পণ্যের জন্য ন্যাশনাল কোয়ালিটি এ্যাসুরেন্স গাইডলাইন (এনকিউএজি)” শীর্ষক সেমিনারে ওষধ প্রশাসন ও চিকিৎসা সেবার সাথে সম্পৃক্ত বিশেষজ্ঞরা বক্তব্য রাখেন।

সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন ওষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের পরিচালক মেজর জেনারেল মোঃ মাহবুবুর রহমান। সেমিনারে বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম বিভাগীয় (স্বাস্থ্য) পরিচালন ডা: হাসান শাহরিয়ার কবির, সিভিল সার্জন ডা: শেখ ফজলে রাব্বি।
প্রধান অতিথি উদ্বোধনী বক্তব্যে বলেন, “বিশ্বে এখন ৫৯টি উন্নয়নশীল দেশ রয়েছে (এলডিসি)। যেখানে কেবল মাত্র বাংলাদেশ এলডিসি দেশ হিসেবে কার্যকর, মানসম্পন্ন ও সাশ্রয়ী মূল্যের ওষুধ এবং ভ্যাকসিন তৈরি করতে সক্ষম”। তিনি বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশ বিশ্বে ‘জেনেরিক হাব’ হিসাবে পরিচিত।
তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ সংশ্লিষ্ট দেশের নিয়ন্ত্রক বিষয়গুলির মান বজায় রেখে ১৪৮টি দেশে ওষুধ রফতানি করে আসছে। যেহেতু ২০৩৩ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশকে “পেটেন্ট পণ্য” উৎপাদনের অনুমতি দেওয়া হয়েছে, তাই আমাদের দেশে ও বিদেশে আরও ওষুধের বাজার উম্মুছনের প্রচুর সম্ভাবনা রয়েছে।
সেমিনারে এনকিএজি-র দুটি বিষয় উপস্থাপন করেন উপ-পরিচালক মোঃ সালাউদ্দিন এবং ডাঃ সৈয়দ উমর কাইয়ূম, কান্ট্রি ডাইরেক্টর ইউএসপি।
প্রবর্তিত গাইডলাইন চিকিৎসা পণ্যগুলির জন্য উৎপাদন, উপাদান সংগ্রহ, সংরক্ষণ, বিতরণ, সরবরাহ ও পোস্ট মার্কেট নজরদারি মাধ্যমে মেডিকেল পণ্যাদির গুণগতমান বজায় রাখার প্রক্রিয়া নিয়ে আলোচনা করা হয়।
উম্মুক্ত আলোচনা পরিচালনা করেন ডাঃ সৈয়দ উমর কাইয়ূম।
মেডিসিনের সাথে সম্পৃক্ত ডাক্তার, জেলা প্রশাসকের প্রধিনিধি, কাস্টমস, হারবালসহ বিভিন্ন সংস্থার সরকারী ও বেসরকারী কর্মকর্তারা সেখানে উপস্থিত ছিলেন।