বিশ্বে বাড়ছে দুর্যোগ

বাংলাদেশ মেইল::

সাম্প্রতিক বছরগুলিতে একের পর এক দুর্যোগের মুখে পড়েছে বিশ্ব। করোনা মহামারী, বন্যা, খরা, দাবানল, পঙ্গপালের হানাসহ নানা ধরনের দুর্যোগ মোকাবিলা করতে হচ্ছে বিশ্ববাসীকে। গত শতকের তুলনায় এখন তিনগুণ বেশি প্রাকৃতিক দুর্যোগের মুখোমুখি হচ্ছে মানুষ। এসব দুর্যোগে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে কৃষি।

টাইমস অফ ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে এই তথ্য উঠে এসেছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে করোনা মহামারীর মধ্যে গত বছর বিরূপ আবহাওয়া দাবানল ও পঙ্গপালের আক্রমণের মতো প্রাকৃতিক দুর্যোগে কৃষিজাত খাদ্য ব্যবস্থা যে মাত্রায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তেমনটি ইতিহাসে আর কখনো ঘটেনি। এত ঘনঘন তীব্র ও জটিল আকারে এই ধরনের দুর্যোগ আগে দেখা যায় নি। দুর্যোগের ক্ষতিকর প্রভাবের বেশিরভাগই কৃষি খাতের ওপর পড়েছে বলে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

দুর্যোগের কারণে কৃষিভিত্তিক ব্যবস্থা বিপর্যস্ত হচ্ছে। গৃহস্থালি থেকে জাতীয় পর্যায় পর্যন্ত এর প্রভাব পড়েছে। প্রজন্মের পর প্রজন্মকে তার জন্য ভুগতে হতে পারে। স্বল্প উন্নত এবং নিম্ন ও মধ্য আয়ের দেশ গুলি প্রাকৃতিক দুর্যোগে সবচেয়ে বেশি ক্ষতির মুখে পড়েছে। ২০০৮ থেকে ২০১৮ সালে উন্নয়নশীল দেশগুলিতে প্রাণিসম্পদ ও শস্য নষ্ট হয়ে ১৮ বিলিয়ন ডলারের বেশি ক্ষতি হয়েছে। এই সময়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে এশিয়া এবং ক্ষতির পরিমাণ প্রায় ৪ হাজার ৯ শত কোটি ডলার। এরপর আফ্রিকায় ৩ হাজার কোটি ডলার এবং লাতিন আমেরিকা সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে খরায়।

এরপর বেশি ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে ঝড়, বন্যা, কীটপতঙ্গ রোগ ও দাবানলে। নির্দিষ্ট মরশুমে ঠিকমতো বৃষ্টি না হওয়ায় শস্য ও প্রাণিসম্পদ উৎপাদন ৩৪% ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আর এর ফলে বিপর্যস্ত হয়েছে মানবজাতি। তবে এই ক্ষতির হাত থেকে বেরিয়ে আসতে হলে মানব জাতিকে আরো অনেক বেশি সতর্ক থাকতে হবে। তারা যেন নিজেদের ক্ষতি করার জন্য পৃথিবীর উপাদানগুলিকে নষ্ট না করে। এমনটাই মনে করেন বিশেষজ্ঞরা।