উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আসছেন জয়া
বালি আর্কেটের উদ্বোধনী জনসমাগম কতোটা করোনা মুক্ত হবে

বাংলাদেশ মেইল ::

করোনা সংক্রমণ কমিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে সারাদেশের মতো চট্টগ্রামে  মাঠে নেমেছে জেলা প্রশাসন। বিনোদন কেন্দ্র বন্ধ করে জনসমাগম নিষিদ্ধ ঘোষণা  করেছে চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক মুমিনুর রহমান।  করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় নগরীর পতেঙ্গা সমুদ্রসৈকত, পারকি সৈকত, ফয়’স লেক, চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানাসহ চট্টগ্রামের সব বিনোদনকেন্দ্র আগামী ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করেছে জেলা প্রশাসন। বৃহস্পতিবার (১ এপ্রিল) জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মমিনুর রহমান স্বাক্ষরিত আদেশে এ তথ্য জানানো হয়।

বৃহস্পতিবার  করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বিশেষ  নির্দেশনা জারী হলে চকবাজারে আজ (শুক্রবার)  উদ্বোধন হতে যাওয়া বালি আর্কেটের জমকালো আয়োজন নিয়ে চলছে আলোচনা সমালোচনা।  করোনার ভয়াবহ পরিস্থিতির মধ্যেই চট্টগ্রামে আসছেন অভিনেত্রী জয়া আহসান । শুক্রবার চকবাজারে নবনির্মিত শপিং মল বালি আর্কেট উদ্বোধন করবেন এই তারাকা অভিনেত্রী । জয়া আহসানের আগমনকে কেন্দ্র করে ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহন করেছে মার্কেট কতৃপক্ষ।

চকবাজার এলাকায় ‘বালি আর্কেড’ নামে ১১ তলার একটি ‘সুপার মল’ আজ শুক্রবার উদ্বোধন হবে। বুধ বৃহস্পতিবারও নগরীর বিভিন্ন সড়কে শপিং মলটির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের প্রচারনা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে চকবাজার থানার   পক্ষ থেকে স্থানীয় দোকানপাট আটটার মধ্যে বন্ধ করার নির্দেশনা দিতে দেখা গেছে। করোনা পরিস্থিতি এমন মারাত্মক অবস্থায় বালি আর্কেটের বর্নাঢ্য উদ্বোধনী আয়োজন কেন,  এমন প্রশ্ন করছেন স্থানীয় ব্যবসায়ীরা।

আধুনিক নগর জীবনের জন্য সিনেপ্লেক্স কিংবা সিনেমা হল, শিশুদের জন্য কিডস জোন, তরুণদের জন্য ব্যায়ামাগার, রোমাঞ্চকর মুভি থিয়েটার, কনভেনশন হল, বিউটি পার্লার, ফুডজোন থেকে শুরু করে আরো অনেক কিছু নিয়ে শুরু হওয়া এই শপিং মল নিয়ে নগরবাসীর কৌতুুহল রয়েছে।

এমন সুযোগ সুবিধা সম্বলিত শপিংমল চট্টগ্রামে নেই বললেই চলে। ফলে এটির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জন সমাগম হবে সেটাই স্বাভাবিক। এ বিষয়ে জানতে চাইলে নগর পুলিশের একজন উর্ধতন কর্মকর্তা নাম না করার শর্তে বলেন, করোনা থেকে মানুষকে বাঁচাতে জন সমাগম নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এরই মধ্যে অভিনেত্রী জয় আহসান উপস্থিতিতে এমন জমকালো আয়োজন । জন সমাগম হবে -সেটাই স্বাভাবিক। এই সময়ে মার্কেটটির ম্যানেজমেন্ট এমন আয়োজন করা আসলে ঠিক হয়নি। ‘

তবে শেঠ প্রফার্টিজের পক্ষ থেকে গণমাধ্যমকে জানানো হয়েছে স্বাস্থ্যবিধি মনে পুরো আয়োজন সম্পন্ন করা হবে। বাড়তি জনসমাগম নিয়ন্ত্রণ করা হবে বলে জানানো হয়।

এর আগে চট্টগ্রামে ২০০৭-২০০৮ সালে চালু হয়েছিল প্রথম শপিং মল স্যানমার ওশান সিটি। ফুড কোর্ট ও নির্মাণশৈলির কল্যাণে জনপ্রিয় হয়ে উঠা সেই শপিং মল এখনো নগরীর শীর্ষ শপিংমলগুলোর মধ্যে অন্যতম। স্যানমার ওশান সিটির ১২ বছর পর এসে চট্টগ্রামে বিশ্বমানের শপিংমল গড়ে উঠছে নগরীর ঘনবসতিপুর্ন চকবাজার এলাকায়।

ডেভেলপার শেঠ প্রফার্টিজ এটি নির্মান করেছে ৪২ কাঠা জায়গার উপর।  ১১ তলার বালি আর্কেডে  ১৪ হাজার বর্গফুটের বিশাল লবি, প্রবেশ গেইট  স্কেলেটর,  পঞ্চম তলার ফুড কোর্ট  সবকিছু উপভোগ করতে কিছুুুুটা সময় লাগতে পারে।

বিএম/রা.আ.না