গ্রেফতার হলেন হেফাজত নেতা মুফতি হারুন ইজহার

বাংলাদেশ মেইল ::

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের বিলুপ্ত কমিটির শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক  মুফতি হারুন ইজহারকে গ্রেফতার করা হয়েছে। চট্টগ্রামের লালখান বাজার মাদরাসা থেকে বুধবার  (২৮এপ্রিল) রাত সাড়ে এগারোটায় তাকে  গ্রেফতার করা হয়।

চট্টগ্রামের লালখানবাজার জামেয়াতুল উলুম আল ইসলামিয়া মাদ্রাসায় (লালখানবাজার মাদ্রাসা) অভিযান চালিয়ে আলোচিত হেফাজত নেতা মুফতি হারুন ইজহারকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ন (র‍্যাব)।

মাদ্রাসার  শিক্ষক আব্দুর রহমান জানান , ‘রাত সাড়ে ১১ টার দিকে  র‍্যাবের টিম তাকে গ্রেপ্তার করে। ’

এই বিষয়ে  র‍্যাব-৭ এর পক্ষ থেকে  আনুষ্ঠানিক ভাবে কোন কিছু জানানো হয় নি ।

এক সময় বিএনপি নেতৃত্বাধীন চারদলীয় জোট শরিক শায়খুল হাদিস আল্লামা আজিজুল হক ও মুফতি ফজলুল হক আমিনীর নেতৃত্বাধীন ইসলামী ঐক্যজোটের ভাইস চেয়ারম্যান ছিলেন মুফতি ইজহারুল ইসলাম। ২০০১ সালে জোট সরকার গঠিত হওয়ার পর ইসলামী ঐক্যজোট ভেঙে গেলে তিনি মুফতি আমিনীর নেতৃত্বাধীন অংশের মহাসচিব হন। পরবর্তীতে তিনি নিজেই ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান হয়ে যান। এরপর আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোটে অংশ নেয়ার চেষ্টা করে ব্যর্থ হন। ১/১১ এর সময় জোট সরকারের কঠোর সমালোচক হিসেবে পর্দায় আর্বিভূত হন।

মুফতি ইজহার পরিচালিত লালখানবাজার মাদ্রাসার ছাত্রবাসে ২০১৩ সালের ৭ অক্টোবর বোমা বানানোর সময় বিস্ফোরণে তিনজন নিহত হন। ওই ছাত্রবাসের দায়িত্বে ছিলেন মুফতি ইজহারের ছেলে হারুণ। পরে ২০১৫ সালের ৭ আগস্ট  একই মাদ্রাসায় অভিযান চালিয়ে চারটি তাজা গ্রেনেড, ১৮ বোতল এসিডসহ বিপুল পরিমাণ বিস্ফোরক উদ্ধার করে পুলিশ।।