ক্ষিদার জ্বালায় সাহায্য চাইলে বৃদ্ধা,এগিয়ে এলেন ট্রাফিক সার্জেন্ট।

রানা আবির নাহা

 

নগরীতে পুলিশ চেকপোষ্টে ডিউটি করছিলেন ট্রাফিক সার্জেন্ট জলিল মিয়া। হটাৎ এক বৃদ্ধ মহিলা কয়েকদিন না খেয়ে থাকার কথা জানালে সেই মানবিক ট্রাফিক সার্জেন্ট খাবার কিনে দিলেন পুরো ১ সপ্তাহের। নিজ পকেট থেকে দিলেন নগদ অর্থ।

গত ২৮ এপ্রিল বুধবার রাতে নগরীর সাগরিকা মোড়ে এই বৃদ্ধাকে সাহায্যর হাত বাড়িয়ে দেন এই মানবিক পুলিশ অফিসার।

চট্টগ্রাম মেট্টোপলিটন ট্রাফিক পশ্চিম বিভাগের ট্রাকিক সার্জেন্ট জলিল মিয়া বলেন, চেকপোস্টে ডিউটি চলাকালীন সময়ে এই বৃদ্ধা মহিলাটি আমার কাছে আসে কিছু সাহায্য চাইতে এবং বললেন চারদিন ধরে তার ঘরে খাবার নেই, বিভিন্ন জায়গায় ছোটাছুটি করেছে সাহায্য পাওয়ার জন্যে। কথাগুলো শুনে নিজের আবেগ ধরে রাখতে পারেনি। তাই ফোন নাম্বারটা তাকে দিয়ে দিলাম বললাম আগামীকাল সকাল দশটায় আমার ডিউটি পয়েন্ট আসতে এবং তাকে আশ্বাস দিলাম একটা ব্যবস্থা করে দিবো। আজ সকালে আসার পর তার সাথে প্রায় আধা ঘন্টা কথা বলে তার পারিবারিক অবস্থা জানতে পারলাম। এই বৃদ্ধ বয়সে যেখানে আরাম আয়েশ করে ঘরে থাকার কথা তার পরিবর্তে সে মানবেতর জীবনযাপন করছে,পরিশেষে তার পরিবার কয়েকদিন চলার জন্য কিছু বাজার করে দিলাম।

সে আবেগে আপ্লুত হয়ে কান্না করে আমাকে জড়িয়ে ধরল এবং দোয়া করল। হয়তো এই সামান্য বাজার আপনার আমার জন্য কিছুই না কিন্তু তার জন্য এই মুহূর্তে বড় একটি মরুভূমিতে এক বোতল পানি সমান।।।

চলমান লকডাউনে অনেক অসহায় ও গরীব লোক ছবি অনেক কথা বলে দেয়……………………………..😭

গতকাল রাতে চেকপোস্টে ডিউটি চলাকালীন সময়ে এই বৃদ্ধা মহিলাটি আমার কাছে আসে কিছু সাহায্য চাইতে এবং বললেন চারদিন ধরে তার ঘরে খাবার নেই, বিভিন্ন জায়গায় ছোটাছুটি করেছে সাহায্য পাওয়ার জন্যে। কথাগুলো শুনে নিজেকে কন্ট্রোল করতে পারেনি 😭তাই ফোন নাম্বারটা তাকে দিয়ে দিলাম বললাম আগামীকাল সকাল দশটায় আমার ডিউটি পয়েন্ট আসতে এবং তাকে আশ্বাস দিলাম একটা ব্যবস্থা করে দিবো। আজ সকালে আসার পর তার সাথে প্রায় আধা ঘন্টা কথা বলে তার পারিবারিক হিস্টোরি জানতে পারলাম। এই বৃদ্ধ বয়সে যেখানে আরাম আয়েশ করে ঘরে থাকার কথা তার পরিবর্তে সে মানবেতর জীবনযাপন করছে। পরিশেষে তার পরিবার কয়েকদিন চলার জন্য কিছু বাজার করে দিলাম। সে আবেগে আপ্লুত হয়ে কান্না করে আমাকে জড়িয়ে ধরল এবং দোয়া করল। হয়তো এই সামান্য বাজার আপনার আমার জন্য কিছুই না কিন্তু তার জন্য এই মুহূর্তে বড় একটি মরুভূমিতে এক বোতল পানি সমান।।।

তিনি আরো বলেন,চলমান লকডাউনে অনেক অসহায় ও গরীব লোক আছে যারা দিনের পর দিন না খেয়ে আছে, তাদের প্রতি যে যার অবস্থান ও সামর্থ্য থেকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেওয়ার জন্য আমার সকল শুভানুধ্যায়ীদের কে বিশেষভাবে অনুরোধ করছি অনেকে যারা দিনের পর দিন না খেয়ে আছে, তাদের প্রতি যে যার অবস্থান ও সামর্থ্য থেকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেওয়ার জন্য আমার সকল শুভানুধ্যায়ীদের কে বিশেষভাবে অনুরোধ করছি।