জেলা প্রশাসনের ১০ অভিযানে ২৮ মামলায় ৯২০০ টাকা অর্থদণ্ড এবং ৪০০ মাস্ক বিতরণ

 

নিজস্ব প্রতিবেদকঃঃ

নগরীতে সরকার ঘোষিত লগডাউন সফল করার পাশাপাশি মাক্স ব্যবহার শতভাগ কার্যকর করতে জেলা প্রশাসনের ১০ টিমের ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনায় ২৮ মামলায় ৯২০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

গত শনিবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পযন্ত নগরীর ইপিজেড ও পতেঙ্গা,খুলশী ও বায়েজিদ,কোতোয়ালি সদরঘাট,চান্দগাও পাচলাইশ,পাহাড়তলী,হালিশহর,চকবাজার ও বাকলিয়া,

এ সময় এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ সোহেল রানা নগরীর ইপিজেড ও পতেঙ্গা এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করার সময় ১০ টি মামলা দায়ের করে মোট ৩৭০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন এবং সাধারণ মানুষ কে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলতে নির্দেশনা প্রদান করেন এছাড়াও সচেতনতার লক্ষ্যে জেলা প্রশাসনের পক্ষে মাস্ক বিতরণ করেন।

এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট আশরাফুল হাসান নগরীর খুলশী ও বায়েজিদ এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা কালে ৩ টি মামলা দায়ের করে মোট ৬০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন। সচেতনতার পাশাপাশি সাধারণ মানুষের মাঝে মাস্ক বিতরণ করেন।
এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ মোজাম্মেল হক চৌধুরী নগরীর কোতোয়ালি ও সদরঘাট এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করার সময় ৬ টি মামলা দায়ের করে ২২০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন এছাড়াও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ব্যাপারে জনসাধারণকে সচেতন করেন ।

এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মামনুন আহমেদ অনিক নগরীর চান্দগাও ও পাচলাইশ এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করার সময় ২ টি মামলা দায়ের করে মোট ৩০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন এবং লকডাউন ও স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার ব্যাপারে জনসাধারণকে সচেতন করেন। এছাড়াও সাধারণ মানুষের মাঝে মাস্ক বিতরণ করেন।

এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ আশরাফুল আলম নগরীর পাহাড়তলী এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করার সময় ২ টি মামলা দায়ের করে ৭০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন এবং মানুষের মাঝে মাস্ক বিতরণ করেন।

এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ রাজিব হোসেন শহরের হালিশহর এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করার সময় ৩ টি মামলা দায়ের করে মোট ১২০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন এছাড়াও মানুষ কে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলতে নির্দেশনা প্রদান করেন।

এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ মুসা নাছের চৌধুরী শহরের চকবাজার ও বাকলিয়া এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করার সময় সচেতনতার পাশাপাশি মাস্ক বিতরণ করেন।

এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট নূরজাহান আক্তার সাথী নগরীর বন্দর ও ডবলমুরিং এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করার সময় ২ টি মামলা দায়ের করে ৫০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন।