ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সংঘাত: যুদ্ধের শঙ্কায় জাতিসংঘ

বাংলাদেশ মেইল ::

ফিলিস্তিন-ইসরায়েলের চলমান সংঘাত বেড়ে যাওয়া যুদ্ধ শুরু হওয়ার আশঙ্কা করছে জাতিসংঘ। জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস চলমান সহিংসতায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন।

আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় উভয় পক্ষের প্রতি সহিংসতা বন্ধ করার আহ্বান জানিয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যেতে পারে বলে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন তারা।

জাতিসংঘের মহাসচিব গুতেরেস শান্তি ফিরিয়ে আনতে সংশ্লিষ্টদের প্রতি তৎপরতা আরো বাড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন। জাতিসংঘের মধ্যপ্রাচ্য শান্তিবিষয়ক দূত টর ওয়েনেসল্যান্ড বলেন, দুই পক্ষ পূর্ণমাত্রার যুদ্ধের দিকে এগিয়েছে।

আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের চিফ প্রসিকিউটর ফাতোও বেনসুদা বলেছেন, গভীর উদ্বেগের সঙ্গে পরিস্থিতির ওপর নজর রাখছেন তিনি।

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র নেড প্রাইস বলেছেন, ইসরায়েলের নিজেদের রক্ষা করার অধিকার রয়েছে। অপরদিকে ফিলিস্তিনি জনগণেরও নিজেদের নিরাপত্তা ও সুরক্ষার অধিকার রয়েছে।

ইসরায়েলের প্রতিরক্ষামন্ত্রী বেনি গান্তজ বলেছেন, তাদের হামলা কেবল শুরু। ‘সন্ত্রাসী সংগঠনগুলোর’ ওপর হামলা চলতে থাকবে। দীর্ঘ মেয়াদে শান্তি ফিরিয়ে আনবেন তারা।

অপর দিকে হামাস নেতা ইসমাইল হানিয়ে টেলিভিশনে সম্প্রচারিত ভাষণে বলেছেন, ইসরায়েল যদি বাড়াতে চায় তাহলে আমরা তার জন্য প্রস্তুত। আর তারা বন্ধ করতে চাইলে আমরা তার জন্যও প্রস্তুত।

এদিকে ইসরায়েলের ভাষ্যমতে, গত ৩৮ ঘণ্টায় এক হাজারের বেশি রকেট নিক্ষেপ করেছেন ফিলিস্তিনিরা। অপর দিকে মঙ্গল ও বুধবার গাজায় কয়েক শ লক্ষ্যবস্তুতে বিমান হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল। হামলায় গাজায় ১৩ তলা একটি আবাসিক ভবন ধ্বংস হয়েছে। সেখানে হামাসের নেতাদের কার্যালয় ছিল।

গত সোমবার থেকে শুরু সহিসংতায় ইসরায়েলি বিমান হামলায় অন্তত ৪৩ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। ফিলিস্তিনে নিহত লোকজনের মধ্যে ১৩ শিশুও রয়েছে। অন্যদিকে রকেট হামলায় ইসরায়েলি নিহত হয়েছেন ছয়জন।