উড়িষ্যা ও পশ্চিমবঙ্গ উপকূল অভিমুখে এগোচ্ছে ঘূর্ণিঝড় ‘ইয়াস’

বাংলাদেশ মেইল ::

ঘূর্ণিঝড় ইয়াস আরো শক্তিশালী হয়ে ভারতের উড়িষ্যা ও পশ্চিমবঙ্গ উপকূল অভিমুখে এগোচ্ছে । এটি মঙ্গলবার সকাল নাগাদ প্রবল ঘূর্ণিঝড় এবং তার পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হতে পারে।

সোমবার রাতে সর্বশেষ পর্যবেক্ষণ অনুযায়ী, গতিপথ পরিবর্তন না করলে ইয়াসের বাংলাদেশ উপকূলে আঘাত হানার শঙ্কা কম। তবে আঘাত না হানলেও উপকূলীয় এলাকায় জলোচ্ছ্বাস ও দমকা হাওয়াসহ বৃষ্টি হতে পারে।

এদিকে ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে দেশের চারটি সমুদ্র বন্দরে দুই নম্বর সতর্কতা জারি করেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। এছাড়া উপকূলীয় জেলাগুলোতে ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলায় ব্যাপক প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। প্রস্তুত করা হয়েছে আশ্রয় কেন্দ্রগুলো।

এর আগে পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগর অবস্থানরত গভীর নিম্নচাপটি সোমবার সকাল ছয়টার দিকে ঘূর্ণিঝড় ‘ইয়াস’ এ পরিণত হয়।

বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ রুহুল কুদ্দুস রাত নয়টার দিকে  বলেন, ঘূর্ণিঝড়টি বুধবার সকাল নাগাদ ভারতের উড়িষ্যা ও পশ্চিমবঙ্গ উপকূল অতিক্রম করতে পারে। বাংলাদেশ উপকূলের দিকে আসার শঙ্কা কম। তবে ঘূর্ণিঝড়ের ব্যাস অনেক বড় হওয়ায় খুলনা অঞ্চলের দিকে এর ব্যাপক প্রভাব পড়বে। উপকূলীয় এলাকায় জলোচ্ছ্বাস হবে। পূর্ণিমার সময় হওয়ায় ঘূর্ণিঝড় উপকূল অতিক্রমের সময় জোয়ার থাকবে। তাই জলোচ্ছ্বাসের পানি বেড়ে ১-২ মিটার পর্যন্ত হতে পারে। ভারতের বালাশুরে জলোচ্ছ্বাসের পানি চার মিটার পর্যন্ত হতে পারে বলে সে দেশের আবহাওয়া দপ্তর পূর্বাভাস দিয়েছে বলে জানান তিনি।