একদিনে করোনায় ১৪ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৭০৯

বাংলাদেশ মেইল ::

চট্টগ্রামে করোনা সংক্রমণের উর্ধগতির ধারায় একদিনে মৃত্যু হয়েছে ১৪ জনের৷ একদিনে মৃত্যুর এই সংখ্যা সাম্প্রতিক সময়ে দেখেনি নগরবাসী। শুক্রবার (৯ জুলাই)  করোনার সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে ৭০৯ জনের শরীরে৷ এদের মধ্যে মহানগরের ৪১৬ জন এবং উপজেলায় ২৯৩ জন।
মৃত্যুবরন করা করোনা আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে  মহানগরের ৭ জন উপজেলার ৭ জন।

সিভিল সার্জন কার্যালয়ের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে শনিবার ২০৮২ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এদের মধ্য ৭০৯ জনের নমুনা পজিটিভ। পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ৩৪.০৫ শতাংশ।

চট্টগ্রামে এ নিয়ে মৃত্যু হয়েছে ৭৭১ জন করোনা আক্রান্ত রোগীর। অন্যদিকে এখন পর্যন্ত চট্টগ্রামের মোট ৬৫ হাজার ৮টি নমুনায় করোনা শনাক্ত হয়েছে।

রোববার (১১ জুলাই) চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে এসব তথ্য জানা যায়। তথ্যমতে আগের ২৪ ঘণ্টায় বিআইটিআইডি ল্যাবে ৬২০ নমুনা পরীক্ষায় করোনা শনাক্ত হয় ১৭৬ জনের।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ল্যাবে পরীক্ষা করা হয় ৩৫৭ নমুনা। এতে করোনা শনাক্ত হয় ১৪২ জনের।

এছাড়া কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবে চট্টগ্রামের ৩৬ নমুনা পরীক্ষায় ৩ জন, অ্যান্টিজেন টেস্টে ৬৬৮ নমুনা পরীক্ষায় ২২৪ জন, শেভরন ল্যাবে ২০৩ নমুনা পরীক্ষায় ৫৩ জন, চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতাল ল্যাবে ৪৯ নমুনা পরীক্ষায় ২১ জন, আরটিআরএল ল্যাবে ৪৯ নমুনা পরীক্ষায় ৩৬ জন, মেডিকেল সেন্টার ল্যাবে ৩১ নমুনা পরীক্ষায় ১৬ জন এবং এপিক হেলথ কেয়ারে ৬৯ নমুনা পরীক্ষায় ৩৮ জনের করোনা শনাক্ত হয়।

সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামে করোনা শনাক্তদের মধ্যে লোহাগাড়ার ৪ জন, সাতকানিয়ার ১৫ জন, বাঁশখালীর ৮ জন, আনোয়ারার ১ জন, চন্দনাইশের ২৯ জন, পটিয়ার ১৪ জন, বোয়ালখালীর ১১ জন, রাঙ্গুনিয়ার ১৮ জন, রাউজানের ১৯ জন, ফটিকছড়ির ২৩ জন, হাটহাজারীর ৪৮ জন, সীতাকুণ্ডের ৫৪ জন, মিরসরাইয়ের ৩৩ জন এবং সন্দ্বীপের বাসিন্দা রয়েছেন ১৬ জন।

প্রসঙ্গত, ২০২০ সালের ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনা শনাক্তের খবর জানায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় দেশে এখন লকডাউন চলছে।