করোনাকালে স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে ৪,২৮,০০০ বেশি মৃত্যু রাশিয়ায়!

বাংলাদেশ মেইল::

রাশিয়ার করোনা ভাইরাস বিষয়ক টাস্ক ফোর্স বলছে, মহামারী শুরু হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত ১,৪১,৫০১ জন মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। কিন্তু শুক্রবার রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় পরিসংখ্যান সংস্থার প্রকাশিত তথ্যের ভিত্তিতে বার্তা সংস্থা রয়টার্স এর গণনা অনুযায়ী, দেশটিতে করোনা ভাইরাস মহামারী চলাকালীন ২০২০ সালের এপ্রিল মাস থেকে এ বছরের মে মাস পর্যন্ত প্রায় ৪,২৮,০০০ ‘এক্সেস ডেথ’ রেকর্ড করা হয়েছে।

অনেক মহামারী বিশেষজ্ঞের মতে, করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রকৃত মৃত্যুর সংখ্যা নির্ণয়ের সবচেয়ে ভালো উপায় হলো ‘এক্সেস ডেথ’। ‘এক্সেস ডেথ’ বলতে কোন অঞ্চলে দুর্যোগ বা মহামারীকালে (যেমনঃ করোনাকালে) একটি নির্দিষ্ট সময়ে মানুষের মৃত্যুর সংখ্যা এবং ওই সমান সময়ে ওই অঞ্চলে স্বাভাবিক জীবনে মৃত্যুর প্রত্যাশিত সংখ্যার মধ্যে পার্থক্যকে বুঝায়। রয়টার্স মাসিক গণনার ভিত্তিতে ২০১৫-১৯ সালের বার্ষিক গড় মৃত্যুসংখ্যার সাথে তুলনা করে এই তথ্য দিয়েছে।

পরিসংখ্যান বিষয়ক সংস্থা রোস্টাট রাশিয়ান টাস্ক ফোর্সের বাইরে আলাদাভাবে করোনাকালে মৃত্যুর সংখ্যা গণনা করে আসছিল। রোস্টাট বলছে, গত বছরের এপ্রিল থেকে এ বছরের মে মাসের মধ্যে করোনা সম্পর্কিত কারণে প্রায় ২,৯০,০০০ লোক মারা গেছেন। তাদের তথ্যমতে, মে মাসেই করোনা বা করোনা সম্পর্কিত কারণে ১৮,৬৯৫ জন মারা গেছেন।

প্রসঙ্গত, রাশিয়ায় এখন নতুন করে করোনা ভাইরাসের তীব্রতা বেড়েছে। কর্তৃপক্ষ এর জন্য করোনার অধিক সংক্রামক ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট এবং ভ্যাকসিনের মজুদ থাকা স্বত্ত্বেও জনগণের টিকা গ্রহণে অনিচ্ছাকে দায়ী করছেন।

রাশিয়ার করোনা ভাইরাস টাস্ক ফোর্স শুক্রবার জানিয়েছে, দেশটিতে ২৫,৭৬৬ জন নতুন করোনা রোগী শণাক্ত হয়েছেন, যা জানুয়ারির ০২ তারিখের পর একদিনে সবচেয়ে বেশি সংক্রমণের রেকর্ড। এ পর্যন্ত রাশিয়ায় ৫৭ লাখেরও বেশি মানুষ করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন।।