চট্টগ্রামের ব্যবসায়ী ও তার ছেলের বিদেশযাত্রায় নিষেধাজ্ঞা

নিম্ন আদালত

বাংলাদেশ মেইল ::

চট্টগ্রামের ব্যবসায়ী শামসুল আলম ও তার ছেলে মিজানুর রহমানকে বিদেশ যাওয়ার অনুমতি দিয়ে নিম্ন আদালতের দেয়া আদেশ স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট।

একইসঙ্গে তাদেরকে অনুমতি না দিতে স্পেশাল ব্রাঞ্চের (এয়ারপোর্ট অ্যান্ড ইমিগ্রেশন) ডিআইজিকে নির্দেশনা দেন আদালত।

ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকের এক আবেদনের শুনানি নিয়ে মঙ্গলবার (৬ জুলাই) হাইকোর্টের বিচারপতি জে বি এম হাসানের ভার্চুয়াল বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে  আবেদনের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী আলী আক্কাস চৌধুরী। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল তুষার কান্তি রায়।

আইনজীবী আলী আক্কাস চৌধুরী বলেন, চট্টগ্রামে কদমতলী শাখা শামসু স মিলের মালিক শামসুল আলমের কাছে ঋণ বাবদ ৬৩ কোটি টাকার মতো পাওনা আছে। আর এই ঋণের জামিনদার তার ছেলে মিজানুর রহমান। যে সম্পত্তির অনুকূলে ঋণ দেয়া হয়েছে, সেই সম্পত্তি শামসুল আলম তার ছেলের নামে হেবা করে দিয়েছে। এমনকি তারা বিদেশ চলে যাবেন বলে শোনা যায়। এরপর ব্যাংক কর্তৃপক্ষ তাদের নামে ৪০৬ ও ৪০২ ধারায় মামলা করে।

তিনি বলেন, ওই মামলায় আত্মসমর্পণ করে জামিন পায় তারা। এ জামিনের শর্ত ছিলো পাসপোর্ট জমা রাখা এবং বিদেশে যেতে আদালতের অনুমতি নেয়া। গত ২৯ জুন তাদের আবেদনের শুনানি নিয়ে চট্টগ্রামের মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-১ বিদেশ যেতে অনুমতি দেন।

এ আদেশ বাতিল চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। ওই আবেদনের শুনানি মঙ্গলবার হাইকোর্ট নিম্ন আদালতের আদেশ স্থগিত করেন। দুই দিনের মধ্যে আদালতে পাসপোর্ট জমা দিতে (যদি ইতিমধ্যে আদালত থেকে ফেরত নেন) নির্দেশনা দিয়েছেন।

পাশাপাশি তাদেরকে অনুমতি না দিতে স্পেশাল ব্রাঞ্চ (এয়ারপোর্ট অ্যান্ড ইমিগ্রেশন) এর ডিআইজিকে নির্দেশনা দিয়েছেন বলে জানান আলী আক্কাস চৌধুরী।