টর্চ লাইটের আঘাতে রোহিঙ্গা হত্যা: গ্রেপ্তার আরও ৪

টর্চ লাইটের আঘাতে/
বাংলাদেশ মেইল ::

কক্সবাজারের টেকনাফের নয়াপাড়া ক্যাম্পে টর্চ লাইটের আঘাতে এক রোহিঙ্গা শরণার্থী নিহত হওয়ার ঘটনায় আরও চার রোহিঙ্গাকে গ্রেপ্তার করেছে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (১৬-এপিবিএন)। শনিবার (১৮ জুলাই) রাত পৌনে দশটায় নয়াপাড়া ক্যাম্প থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃত হলেন কামাল হোসেন, মো. জুনায়েদ, মো. রাসেল, ক্যাফায়েতুল্লাহ। তারা সবাই নয়াপাড়া রেজিস্টার্ড ক্যাম্পের বিভিন্ন ব্লকের বাসিন্দা।

এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে এর আগে মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১২টায় নয়াপাড়া রেজিস্টার্ড ক্যাম্প বি ব্লক থেকে ১০ রোহিঙ্গা শরণার্থীকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ হত্যা মামলায় এখন পর্যন্ত ১৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন ১৬ এপিবিএনের অধিনায়ক এসপি তারিকুল ইসলাম। তিনি বলেন, সম্প্রতি ক্যাম্পে ঘটে যাওয়া শাকের হত্যায় জড়িত আসামিরা নয়াপাড়া ক্যাম্পে অবস্থান করছেন এমন তথ্যের ভিত্তিতে নয়াপাড়া এপিবিএন ক্যাম্পের সদস্যরা অভিযান চালিয়ে চারজনকে গ্রেপ্তার করেন।

তিনি আরও বলেন, এর আগে পূর্বশত্রুতার জেরে মঙ্গলবার গভীর রাতে নয়াপাড়া রেজিস্টার্ড রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বি-ব্লকের এনামত প্রকাশ এনামসহ ১০ থেকে ১২ ব্যক্তি শাকের নামের এক রোহিঙ্গাকে বেধড়ক মারধর করেন। এক পর্যায়ে টর্চ লাইট দিয়ে তার মাথায় আঘাত করা হয়। পরে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে ক্যাম্পের স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক শাকেরকে মৃত ঘোষণা করেন। ৪৫ বছর বয়সী মো. শাকের ওই ক্যাম্পের বাসিন্দা ছিলেন।

বিএম/টর্চ লাইটের আঘাতে