প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন ছাড়লেন ইসরায়েলের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহু

বাংলাদেশ মেইল::

নানা জল্পনার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে গভীর রাতে প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন ছাড়লেন ইসরায়েলের সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। নাফতালি বেনেতের জোটের কাছে হারের এক মাস পর গতকাল রোববার সকালে তিনি বাসাটি ছাড়েন। রোববার আল-জাজিরা এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে।

আল-জাজিরার প্রতিবেদন অনুযায়ী নেতানিয়াহু প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন ছাড়ার পর তার পরিবারের এক মুখপাত্র সাংবাদিকদের বলেছেন, রোববার মধ্যরাতের কিছুক্ষণ পরে নেতানিয়াহু ও তার পরিবারের সদস্যরা বেলফোর স্ট্রিটে অবস্থিত প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন ছাড়েন। ফলে দীর্ঘ ১২ বছর পর আলোচিত ওই বাসভবন ছাড়তে হলো তাকে। তিনি বর্তমানে তার পরিবার নিয়ে উত্তর ইসরায়েলের কেয়সারিয়া এলাকায় অবস্থিত নিজের ব্যক্তিগত বাসায় উঠেছেন।

প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর গত জুনের শেষদিকে নতুন প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেনেটের দফতর থেকে প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন খালি করে দেয়ার জন্য ১০ জুলাই সময়সীমা বেধে দেওয়া হয়েছিল।

নেতানিয়াহু টানা সবচেয়ে বেশি সময় ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। প্রথম দফায় তিন বছরের জন্য প্রধানমন্ত্রী থাকার পর টানা ১২টি বছর ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন তিনি। অল্প সময়ের মধ্যে কয়েকটি নির্বাচন হলেও সরকার গড়তে না পেরে তিনি ক্ষমতা ছাড়েন।

এদিকে দেশটির প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন খালি হলেও সেখানে উঠছেন না বর্তমান প্রধানমন্ত্রী বেনেত। বরং তিনি সরকারি দায়িত্ব পালনে কার্যালয় হিসাবেই একে ব্যবহার করবেন। তার স্ত্রী ও চার সন্তান রানানা শহরে তাদের বাসভবনেই থাকবেন।

গত সপ্তাহে নতুন সরকার গঠন করেন বেনেত। সরকার গঠনের বিষয়ে রোববার নেসেটের অধিবেশনে সদস্যদের আস্থা ভোট নেওয়া হয়। আস্থা ভোটে সংখ্যাগরিষ্ঠ সদস্য জোট সরকারের পক্ষে সমর্থন দেন। এতে ১২ বছর দীর্ঘ শাসনের পর বিরোধী দলের আসনে গিয়ে বসেন বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু।

ইসরায়েলে সরকার গঠনে কোনো দলের নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা না থাকায় গত দুই বছরের মধ্যে চারবার দেশটিতে সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ২৩ মার্চের চতুর্থ নির্বাচনের পরও কোনো পক্ষ সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করতে পারেনি। সূত্র : আল জাজিরা।