চবি’র সাবেক অধ্যাপক ভূঁইয়া ইকবাল আর নেই

ভূঁইয়া ইকবাল

বাংলাদেশ মেইল ::

বাংলা ভাষার গবেষক, সম্পাদক ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যাপক ভূঁইয়া ইকবাল আর নেই (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। করোনাজনিত জটিলতায় রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৫ বছর।

ভূঁইয়া ইকবাল বৃহস্পতিবার ভোর ৬টার দিকে মারা যান বলে নিশ্চিত করেছেন তার ছেলে অনিন্দ্য ইকবাল।তিনি জানান, করোনার চিকিৎসা নেওয়ার পর  রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছিল। এরপরও করোনা সংক্রান্ত জটিলতা থাকায় ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসা চলছিল। এরমধ্যে ভোরে মারা যান।

ভূঁইয়া ইকবাল ১৯৪৬ সালের ২২ নভেম্বর ভোলায় জন্মগ্রহণ করেন। বেড়ে ওঠেন ঢাকায়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলায় স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি নেন তিনি। ১৯৮৪ সালে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডক্টরেট ডিগ্রি লাভ করেন।

কর্মজীবনে ১৯৭৩ সালে  চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগে অধ্যাপনায় যোগ দেন। পাশাপাশি চালিয়ে যান গবেষণা, সম্পাদনা। তার অন্যতম গ্রন্থ ‘আবুল কালাম শামসুদ্দীন, আনোয়ার পাশা, বুদ্ধদেব বসু, শশাঙ্কমোহন সেন, (স্যার) আজিজুল হক, বাংলাদেশের উপন্যাসে সমাজচিত্র, রবীন্দ্রনাথের একগুচ্ছ পত্র বাংলাদেশে রবীন্দ্র-সংবর্ধনা’, ‘রবীন্দ্রনাথ ও মুসলমান সমাজ’, ‘পূর্ববঙ্গে রবীন্দ্র-বক্তৃতা’, ‘মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়’, ‘শামসুর রাহমান: নির্জনতা থেকে জনারণ্যে’ এবং ‘আনিসুজ্জামান: সমাজ ও সংস্কৃতি’।

২০১৩ সালে তিনি চবি’র বাংলা বিভাগ থেকে  অবসর নেন।  প্রবন্ধ সাহিত্যে বিশেষ ভূমিকা রাখার জন্য ২০১৪ সালে অধ্যাপক ভূঁইয়া ইকবাল বাংলা একাডেমি পুরস্কার লাভ করেন।

ভূঁইয়া ইকবালের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন চবি বাংলা বিভাগের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীবৃন্দ।