মোদির মন্ত্রিসভায় ৪২ শতাংশের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা

মোদির মন্ত্রিসভায় ৪২ শতাংশের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা

বাংলাদেশ মেইল ::

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নতুন মন্ত্রিসভায় ৪২ শতাংশ, অর্থাৎ ৩৩ জন মন্ত্রীর বিরুদ্ধে রয়েছে ফৌজদারি মামলা। শুধু তাই নয়, তাদের মধ্যে আবার ২৪ জন, অর্থাৎ ৩১ শতাংশের বিরুদ্ধে রয়েছে খুন, খুনের চেষ্টা এবং ডাকাতির মতো গুরুতর অভিযোগ। চলতি সপ্তাহে মোদি মন্ত্রিসভার রদবদল এবং সম্প্রসারণের পর এ প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে অ্যাসোসিয়েশন অব ডেমোক্র্যাটিক রিফর্মস (এডিআর)। খবর আনন্দবাজারের।

প্রধানমন্ত্রী মোদিসহ মোট ৭৮ জন মন্ত্রীকে নিয়ে তৈরি হয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের নতুন এ মন্ত্রিসভা। তার মধ্যে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী পদে আছেন ২৮ জন। গত বুধবার নতুন মন্ত্রিসভার ঘোষণা এবং শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানের পরই মন্ত্রীদের নির্বাচনী হলফনাফার তথ্য তুলে ধরে এ প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে পর্যবেক্ষণ সংস্থা এডিআর।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মোদির নতুন মন্ত্রিসভার ৯০ শতাংশ, অর্থাৎ ৭০ জন মন্ত্রীই কোটিপতি। তাদের মধ্যে আবার চার জনের সম্পত্তির পরিমাণ ৫০ কোটির বেশি। বেসামরিক বিমান পরিষেবা মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পাওয়া নতুন মুখ জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়ার সম্পত্তির পরিমাণ ৩৭৯ কোটি। তালিকায় তার পরেই রয়েছেন পীযূষ গয়াল (৯৫ কোটি), নারায়ণ রাণে (৮৭ কোটি), রাজীব চন্দ্রশেখর (৬৪ কোটি)।

নতুন মন্ত্রিসভায় যাদের সম্পত্তির পরিমাণ সবচেয়ে কম তাদের মধ্যে রয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের আলিপুরদুয়ারের সংসদ সদস্য জন বার্লা (১৪ লাখের বেশি), ত্রিপুরার প্রতিমা ভৌমিক (৬ লাখের বেশি), রাজস্থানের কৈলাস চৌধুরি এবং ওড়িশার বিশ্বেশ্বর টুডু।