চট্টগ্রামে আরো ১২ জনের মৃত্যু

১২ জনের মৃত্যু
New official Coronavirus name adopted by World Health Organisation is COVID-19. Iinscription COVID-19 on blue background

বাংলাদেশ মেইল ::

লকডাউন আর কড়া বিধিনিষেধ কিছুতেই কমছে না চট্টগ্রামে করোনার সংক্রমন ।  চট্টগ্রামে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে আরোও ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮৯৭ জনে।

রোববার রাতে জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আরো ৮৪৮ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে চট্টগ্রামে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৭৬ হাজার ২১১ জনে এসে দাঁড়িয়েছে। এর মধ্যে ৫৭ হাজার ৪৮৯ জন নগরের বাসিন্দা ও ১৮ হাজার ৭২২ জন বিভিন্ন উপজেলার।

চট্টগ্রামের সরকারি-বেসরকারি ৮টি ল্যাব ও বিভিন্ন এন্টিজেন বুথে সর্বমোট ২ হাজার ২৮২ জনের নমুনা পরীক্ষা হয়। ল্যাবভিত্তিক রিপোর্টে দেখা যায়, ফৌজদারহাটের বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল এন্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস ল্যাবে ১১৯ জনের নমুনা পরীক্ষায় চট্টগ্রাম নগরের ৫০ ও উপজেলার ৩ জন জীবাণুবাহক পাওয়া গেছে।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ল্যাবে ২৩৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হলে নগরের ৯৭ ও উপজেলার ২১ জনের শরীরে জীবাণুর উপস্থিতি চিহ্নিত হয়। নমুনা সংগ্রহের পরপরই ফলাফল প্রদানকারী এন্টিজেন টেস্টে ১০৪৪ জনের মধ্যে ৩৪৪ জন জীবাণুবাহক বলে জানানো হয়।

এর মধ্যে চট্টগ্রাম নগরের ১৪১ জন ও উপজেলার ২০৩ জন। চট্টগ্রাম নগরীতে করোনা পরীক্ষার নমুনা সংগ্রহকারী কয়েকটি কেন্দ্রে এন্টিজেন টেস্ট করা হয়ে থাকে।

সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামে করোনা শনাক্তদের মধ্যে লোহাগাড়ার ১৬ জন, সাতকানিয়ার ৭ জন, বাঁশখালীর ৯ জন, আনোয়ারার ৩ জন, চন্দনাইশের ৩০ জন, পটিয়ার ৪৩ জন, বোয়ালখালীর ৩৮ জন, রাঙ্গুনিয়ার ৩২ জন, রাউজানের ৪ জন, ফটিকছড়ির ১৪ জন, হাটহাজারীর ১০ জন, সীতাকুণ্ডের ১৭ জন, মিরসরাইয়ের ১২ জন এবং সন্দ্বীপের বাসিন্দা রয়েছেন ৩৩ জন।

প্রসঙ্গত চট্টগ্রামে গত বছরের ৩ এপ্রিল প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়। এরপর ৯ এপ্রিল করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রথম এক ব্যক্তি মারা যান। সর্বশেষ করোনায় রবিবার ১২ জনের মৃত্যু হলো ।