পাঁচ জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে ২৭ জনের মৃত্যু

করোনা আক্রান্ত

বাংলাদেশ মেইল ::

পাঁচ জেলায় করোনা আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ২৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে রাজশাহীতে ৯, ময়মনসিংহে ৭, খুলনায় ২, চট্টগ্রামে ৬ ও কুষ্টিয়ায় ৩ জনের মৃত্যু হয়। করোনা ভাইরাসে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতাল করোনা ইউনিটের বিভিন্ন ওয়ার্ডে আরও নয় জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে পাঁচজন করোনায় ও উপসর্গে চারজন মারা গেছেন।

গত ২৪ ঘণ্টায় রামেক হাসপাতালের আরটি-পিসিআর মেশিনে ১৬৮টি নমুনা পরীক্ষায় ৪০ জনের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। অন্যদিকে, মেডিকেল কলেজের পিসিআর মেশিনে ৭১৭ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৮১ জনের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। দুই ল্যাবের টেস্টে মোট ৮৮৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এতে ১২১ জনের রেজাল্ট পজিটিভ এসেছে। শনাক্তের হার ১৫ দশমিক ০৩ শতাংশ।

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালে ভর্তিকৃত রোগী ও মৃত্যুর সংখ্যা দুটিই কমেছে। হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে সাতজনের। এদের মধ্যে তিনজন করোনা শনাক্ত হয়ে এবং চারজন উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। একদিনে ৯৯৩ জনের নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে করোনা শনাক্ত হয় ১৮৭ জনের। পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৮ দশমিক ৮৩ শতাংশ।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে খুলনার ২০০ শয্যা বিশিষ্ট ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালে দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। খুলনা ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালে দুইজনের মৃত্যু হয়। এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে খুলনা জেনারেল হাসপাতাল, গাজী মেডিকেল হাসপাতাল, শহীদ শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতাল, খুলনা সিটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে কোনো রোগীর মৃত্যু হয়নি।

চট্টগ্রামে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আরও ৩৪৮ জনের শরীরে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ পাওয়া গেছে। এসময় ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ছয় জনের। অ্যান্টিজেন টেস্টসহ চট্টগ্রামে ১১টি ল্যাবে ২ হাজার ৫৯২টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়।

কুষ্টিয়া করোনা হাসপাতালে করোনা উপসর্গ নিয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিন জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়াও গতকাল বুধবার সকাল ৮টা থেকে আজ বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত জেলায় ৩২৬ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৭৬ জনের নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ২৩ দশমিক ৩১ শতাংশ।